সেট হলেন, রান পেলেন না তামিম

প্রকাশ: ১০ অক্টোবর ২০১৯      

অনলাইন ডেস্ক

ছবি: সংগৃহিত

বিশ্বকাপের পর শ্রীলংকা সিরিজে ব্যর্থ হওয়ার পর লম্বা একটা বিশ্রাম নিয়েছেন তামিম ইকবাল। ঘরের মাঠে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলেননি। খেলেননি ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজও। ওই বিশ্রামের সময়ে থাইল্যান্ডে নিজ খরচে ফিটনেস নিয়ে কাজ করেন তিনি। ভারত সিরিজের প্রস্তুতি স্বরূপ খেলছেন জাতীয় লিগে। তবে তামিম টেস্ট সুলভ দারুণ শুরু করেও রান বড় করতে পারলেন না।

বৃহস্পতিবার জাতীয় লিগের ২১তম আসর শুরু হয়েছে। ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চিটাগং ডিভিশন শুরুতে ব্যাট করতে নামে। মুমিনুলের নেতৃত্বে খেলা দুই ওপেনার তামিম ইকবাল এবং সাদিকুর রহমান ভালো শুরু করেন। দু'জনে তুলে ফেলেন ৮০ রান। এরপর সাদিকুর ৬৯ বলে ৫১ রান করে আউট হন।

তবে দলকে ভরসা দিচ্ছিলেন তামিম। সাদিকুর ফেরার পরে তিনিও আউট হয়ে যান। তামিম টেস্ট মেজাজে শুরু করেন। অনেকটা গাভাস্কারের সেই কথার মতো, টেস্টে যে কোন উইকেট, যে কোন বোলিং আক্রমণের বিপক্ষে প্রথম ঘণ্টাটা প্রতিপক্ষকে দিয়ে দাও। পরের চার-পাঁচ ঘণ্টা নিজের করে নাও। কিন্তু গাভাস্কারের উক্তি সব সময়ই যে সত্যি হবে এমন তো নয়।

তামিমের ক্ষেত্রেও হলো না। তামিম তাই ১০৫ বল খেলে মাত্র ৩০ রান তুলে মাহমুদুল্লাহর বলে তারই হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। চারের মার মারেন তিনটি। অবশ্য তামিম বড় রান না পেলেও টেস্টের ধারায় ফিরেছেন এটাই বাংলাদেশ দলের জন্য ভালো খবর। তামিম আউট হয়ে যাওয়ার পরই চিটাগংয়ের অধিনায়ক মুমিনুল আউট হয়ে যান। তিনি করেন ১১ রান। চিটাগংয়ের শুরুর এই তিন উইকেটই তুলে নিয়েছেন মাহমুদুল্লাহ। ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে ভালো শুরুর পরও তাই চিটাগং ডিভিশন ১১৩ রানে হারায় তিন উইকেট।