ব্রাজিলের জয় আর্জেন্টিনার ড্র

প্রকাশ: ২০ নভেম্বর ২০১৯      

স্পোর্টস ডেস্ক

পুরোটা সময়জুড়ে গ্যালারির দর্শকরা উল্লাস করে গেছেন যার নামে, ৯০ মিনিটের মধ্যে হয়ে যাওয়া তিন গোলের একটিও তার ছিল না। উল্টো খেলার সমাপ্তি এগিয়ে আসছিল তার দলের হারের বাজনা নিয়ে। তবে শেষ পর্যন্ত আর আক্ষেপ-হতাশার দহনে পুড়তে হয়নি আর্জেন্টাইনদের।

৯১ মিনিটের মাথায় গোল এলো লিওনেল মেসির পা থেকে, উরুগুয়ের কাছে দুই দফায় পিছিয়ে পড়া আর্জেন্টিনাও ম্যাচ শেষ করল ২-২ স্কোরলাইনে। বছরের শেষ আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে মেসিরা ড্র করলেও জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে ব্রাজিল। মঙ্গলবার দক্ষিণ কোরিয়াকে ৩-০ গোলের ব্যবধানে হারায় সেলেসাওরা। গোল তিনটি করেন লুকাস পাকিতা, ফিলিপে কুতিনহো ও দানিলো।

এর আগে সোমবার রাতে তেল আবিবে হওয়া আর্জেন্টিনা-উরুগুয়ের প্রীতি ম্যাচে মেসির সমতাসূচক গোলটি হয়েছে পেনাল্টি থেকে। এর আগে ৩৪ মিনিটে কাভানির গোলে উরুগুয়ে এগিয়ে যাওয়ার পর ৬৩ মিনিটে সমতায় নিয়ে আসেন আগুয়েরো। কাভানির গোলে অ্যাসিস্ট ছিল লুইস সুয়ারেজের, আগুয়েরোর হেড মেসির ফ্রি কিকের।

বার্সেলোনায় খেলা এ দুই সতীর্থই ম্যাচের শেষ দুটি গোল করেন। ৬৯ মিনিটের মাথায় ২০ মিটার দূর থেকে জোরালো এক ফ্রি কিকে আর্জেন্টিনা গোলরক্ষক এস্তেবান আন্দ্রাদাকে পরাস্ত করেন সুয়ারেজ, আর যোগ করা মিনিটে স্পট কিকে মার্টিন কাম্পানাকে বিভ্রান্ত করেন মেসি। এ ড্রয়ের ফলে কোপা আমেরিকার পর খেলা টানা ছয় ম্যাচে অপরাজিত রইল আর্জেন্টিনা।

কোচ লিওনেল স্কালোনি ধারাবাহিক এই পারফরম্যান্সের বিশ্নেষণে বলেন, 'ফলের দিক থেকে দেখলে আমরা ঠিক আছি। তবে খেলার দিক থেকে দেখলে এখনও উন্নতি করার জায়গা আছে।'

আর্জেন্টিনা তাদের ২০২২ বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব শুরু করবে আগামী বছরের ২৬ মার্চ ইকুয়েডরের বিপক্ষে। তবে জুলাইয়ে কোপা আমেরিকার তৃতীয় স্থান নির্ধারণীতে চিলির বিপক্ষে লাল কার্ড দেখায় ওই ম্যাচটি মেসি খেলতে পারবেন না।