ঢাকা বুধবার, ২২ মে ২০২৪

এশিয়া কাপ

দলের যে পাঁচ জায়গায় আলো থাকবে

দলের যে পাঁচ জায়গায় আলো থাকবে

ছবি: বিসিবি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশ: ৩১ আগস্ট ২০২৩ | ০৮:৫১ | আপডেট: ৩১ আগস্ট ২০২৩ | ০৮:৫১

বাংলাদেশের ওয়ানডে দলটা বেশ সেটেল। কিন্তু হুট করে এশিয়া কাপ দিয়ে দলে এসেছে বেশ কিছু পরিবর্তন। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ বাদ পড়েছেন। ইনজুরিতে তামিম ইকবাল দলে নেই। নেতৃত্বও ছেড়ে দিয়েছেন তিনি। সাকিব আল হাসান দলের দায়িত্ব নিয়েছেন। ওপেনিংয়ে নতুন জুটি আবার সাত নম্বরের ব্যাটিং নিয়েও আছে চিন্তা। 

সব মিলিয়ে এশিয়া কাপে প্রত্যাশা মতো ভালো খেলতে হলে পাঁচ জায়গায় সেরাটা দিতে হবে টাইগারদের। বাংলাদেশ দলের ওই পাঁচ জায়গায় চোখও থাকবে ভক্তদের। 

সাকিবের নেতৃত্ব: দেশসেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। শুধু ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিংয়ে নন নেতৃত্বেও অনন্য তিনি। কিন্তু তামিম ইকবাল যে দলটাকে নেতৃত্ব দিয়ে অসাধারণ সাফল্য এনে দিয়েছেন সাকিবের শুরু করতে হবে সেখান থেকেই। দল বোঝার কিংবা গোছানোর সময় পাচ্ছেন না তিনি। বরং হাতে থাকা দলটা নিয়ে এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপে সাফল্য এনে দেওয়ার চ্যালেঞ্জ থাকবে তার ওপর। 

নতুন ওপেনিং জুটি: তামিমের সঙ্গে লিটন দাসও নেই এশিয়া কাপে। তাদের জায়গায় নাঈম শেখ ও তানজিদ তামিম প্রথম ম্যাচে ওপেনিং করবেন। পরে সুযোগ দেওয়া হতে পারে এনামুল হক বিজয়কেও। কিন্তু সুযোগ যে-ই পাক এশিয়া কাপের ওপেনিং জুটি নতুন। ছয় বছর পর লিটন-তামিমের দু’জনকে ছাড়াই ওয়ানডের ওপেনিং জুটি হতে যাচ্ছে। 

এবাদতের ধাক্কা সামলানো: লাল বলে এবাদত অনেকদিন ধরেই নিয়মিত খেলছেন। ওয়ানডের জন্যও প্রস্তুত করা হয়েছিল তাকে। এবাদত পুরনো বলে গতি দিয়ে প্রতিপক্ষের ব্যাটারদের চাপে রাখবেন এটাই ছিল টিম ম্যানেজমেন্টের পরিকল্পনা। এবাদতের কাজটা অন্য কারো জন্য সহজে পূরণ কঠিন। তাকে ছাড়া পেস বোলিং আক্রমণে ভারসাম্য আনার চ্যালেঞ্জ নিতে হবে টিম ম্যানেজমেন্টের। 

সাতের সমাধান কী: সাত নম্বরে মিরাজকে খেলিয়ে অতিরিক্ত একজন বোলার নেওয়া হবে নাকি নিয়মিত কোন ব্যাটারকে সেখানে সুযোগ দেওয়া হবে? এই প্রশ্নের উত্তর মেলেনি এখনও। টিম ম্যানেজমেন্ট প্রতিপক্ষ, উইকেট ও কন্ডিশন বুঝে নিতে চায় এই সিদ্ধান্ত। অর্থাৎ কখনও সাতে আফিফ-শামীম পাটোয়ারি জায়গা পেতে পারেন। আবার মিরাজকে সাতে খেলিয়ে আটে স্পিনার শেখ মেহেদী-নাসুম আহমেদকে নেওয়া হতে পারে। 

ফিল্ডিং এবং প্রয়োগ: হাথুরুসিংহে কোচ হয়ে আসার পরে জানিয়েছেন, ব্যাটিং-বোলিং নয় সবচেয়ে বেশি তিনি ফোকাস করবেন ফিল্ডিংয়ে। সাকিবও জানিয়েছেন একই কথা। ফিল্ডিংয়ে পিছিয়ে থাকা ক্রিকেটারকে তারা দলে সুযোগ না দেওয়ার পক্ষে। ওই ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশের উন্নতি এবং মাঠে এর প্রয়োগ দেখানোর চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশ দলের সামনে।

আরও পড়ুন

×