'রিয়ালের কাছে হারলে মনে হয় চাকরিও থাকবে না'

প্রকাশ: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

ছবি: মার্কা

ছবি: মার্কা

নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে এতটাই শঙ্কিত ম্যানচেস্টার সিটির কোচ পেপ গার্দিওলা। প্রিমিয়ার লিগে ভালো অবস্থানে নেই তার দল। সেজন্য কম কথা শুনতে হচ্ছে না তাকে। এবার যদি চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও শূন্যহাতে বিদায় হয়, তাহলে তো আরও বিপদ। জুনে ইতিহাদ স্টেডিয়ামে রিয়ালের মুখোমুখি হবে ম্যানসিটি। ওই ম্যাচটি তাদের জন্য এখন মহাগুরুত্বপূর্ণ। জিতলে কেটে যাবে হতাশার মেঘ, আর বিপরীতে কিছু হলে সবার আগে কোপ পড়তে পারে পেপে ওপর। যেমনটা ইঙ্গিত দিয়েছেন পেপ নিজেই, 'আমি এখানে এসেছি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে। আমি স্বপ্ন দেখি রিয়ালের বিপক্ষে ভালো করার, ভালো একটা ম্যাচ উপভোগ করার। তবে আমার মনে হয়, রিয়ালের কাছে হারলে আমার চাকরিও থাকবে না।'

চলমান মৌসুমে দুর্দান্ত লিভারপুল। এরই মধ্যে তারা শিরোপার সুবাস পাচ্ছে। দুইয়ে প্রিমিয়ার লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ম্যানসিটি। তাদের অর্জন ৫১ পয়েন্ট। যেখানে সিটির সমান ম্যাচ খেলা লিভারপুলের নামের পাশে রয়েছে ৭৩ পয়েন্ট। বলা যায়, লিগ জয়ের আশা অনেকটাই শেষ সিটিজেনদের। তা ছাড়া ইয়ুর্গেন ক্লপের দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন চ্যাম্পিয়ন্স লিগও জিতে নিয়েছে তারা। তবে এসব নিয়ে গার্দিওলাও মুখ খুলেছেন। তিনি মনে করেন সব কিছুই একটা প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে হয়। যেটা লিভারপুল করেছিল, 'লিভারপুল চার-পাঁচ বছর ব্যয় করে শেষ পর্যন্ত গতবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছে। এটা ছিল একটা প্রক্রিয়া। নতুন প্লেয়ার, নতুন পরিকল্পনা, তারপর অনেক অনেক সময় ও শ্রম ব্যয়। এরপর তারা এখন বিশ্বের সেরা ক্লাব।'

মানুষ হয়তো সর্বদা কোচের দিকেই চেয়ে থাকে। তারা ভাবেন, কোচরাই পারে একটা দলকে অনেক কিছু উপহার দিতে। এমন একটা আভাস দিয়ে গার্দিওলা বলেন, 'লোকজন সবসময় মনে করেন আপনি পেপ, ইয়ুর্গেন বা অন্য কেউ। আপনি তো সব শিরোপাই জিততে পারেন, চাইলে দুই হাজার মিলিয়ন পয়েন্ট, দুই হাজার মিলিয়ন গোলও এনে দিতে পারেন। আসলে এটা সর্বদা হয় না। স্পোর্টসে এটা সম্ভব নয়। কেননা কোনো দলই সব শিরোপা একই সময় জিততে পারে না।'