রিয়াদকে টেস্ট থেকে বাধ্যতামূলক বিশ্রাম

প্রকাশ: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০     আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০       প্রিন্ট সংস্করণ

ক্রীড়া প্রতিবেদক

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট দলে জায়গা হয়নি মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের। তাতে বোধ হয় মনটাও ভালো নেই তার। আপাতত তিনি থাকবেন বিশ্রামে - ফাইল ছবি

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট দলে জায়গা হয়নি মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের। তাতে বোধ হয় মনটাও ভালো নেই তার। আপাতত তিনি থাকবেন বিশ্রামে - ফাইল ছবি

ইন্দোরে ভারতের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনই গুঞ্জন ওঠে, মাহমুদুল্লাহকে টেস্ট দল থেকে বাদ দেওয়া হবে। প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো ওই ম্যাচ চলাকালেই মিডিয়ায় বলেছিলেন, টেস্ট দলকে ঢেলে সাজাবেন। টেস্টের প্রতি নিবেদিতদের নিয়ে গড়বেন টেস্ট দল। এরপরও কলকাতার ঐতিহাসিক টেস্টে খেলার সুযোগ দেওয়া হয় মাহমুদুল্লাহকে। পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট তার আউট হওয়ার ধরন নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। রাওয়ালপিন্ডিতেই প্রধান কোচ মাহমুদুল্লাহকে টেস্ট থেকে অবসর নেওয়ার বার্তা দেন। বিসিবির ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষও মাহমুদুল্লাহকে টেস্ট দলে চায় না। যে কারণে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের স্কোয়াডে রাখা হয়নি তাকে।

প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলছেন, হোম টেস্টে নতুনদের সুযোগ করে দিতেই মাহমুদুল্লাহকে বিশ্রাম দেওয়া। নান্নু বলেন, 'রিয়াদ একজন সিনিয়র খেলোয়াড়, আমরা এই সিরিজ থেকে ওকে বিশ্রাম দিয়েছি।'

এই বাধ্যতামূলক বিশ্রাম চাননি মাহমুদুল্লাহ। বিষয়টি বিশ্রাম হলে দল ঘোষণার আগে মাহমুদুল্লাহর সঙ্গে কথা বলার কথা নির্বাচকদের। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তা করেননি তারা। যে কারণে রোববার সংবাদ সম্মেলনে প্রধান নির্বাচক নান্নুকে প্রশ্ন করা হয়েছিল পরের টেস্টে মাহমুদুল্লাহকে বিবেচনা করা হবে কি-না। উত্তরে বিষয়টি এড়িয়ে গেছেন তিনি।

মাহমুদুল্লাহর টেস্ট ব্যাটিং রেকর্ড খুব বেশি ভালো না। ৪৯ টেস্টে ৩১.৭৭ গড়ে ২৭৬৪ রান করেছেন তিনি। উইকেট ৪৩টি। ইনিংসে পাঁচ আর ম্যাচে ৮ উইকেট শিকারের রেকর্ড আছে। অফস্পিন দিয়েই টেস্ট দলে জায়গা করে নিয়েছিলেন মাহমুদুল্লাহ। বোলিংটা ভালো করলেও অধিনায়করা সেভাবে কাজে লাগাননি তাকে। টেস্টে মাহমুদুল্লাহর পরিচয়ও তাই বাঁক নিয়েছে ব্যাটসম্যানে, যে কারণে সংস্কারের প্রথম ধাক্কাটা লেগেছে তার টেস্ট ক্যারিয়ারে। যদিও মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলছেন, কোচ মাহমুদুল্লাহকে টেস্ট থেকে অবসর নিতে বলেননি, 'রিটায়ারমেন্টের কথা বলা হয়নি। পাকিস্তানে আমি ছিলাম না, তবে কী কথা হয়েছে জানি। সুতরাং এখানে এরকম কিছু হয়নি।'

টেস্ট দলে না থাকলেও বিসিএলে ফাইনাল ম্যাচ খেলবেন মাহমুদুল্লাহ। সে জন্য তার দল দক্ষিণাঞ্চলকে আগে ফাইনালে উন্নীত হতে হবে। আর ফাইনাল খেলা না হলে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে এবং টি২০ সিরিজের জন্য প্রস্তুতি নেবেন তিনি। তবে বাদ পড়া বা নিজেকে প্রস্তুত করা নিয়ে কোনো কথা বলেননি মাহমুদুল্লাহ।