সৌম্যর সঙ্গে আমার ঝগড়া বেশিক্ষণ টেকে না: পূজা

প্রকাশ: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০     আপডেট: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

প্রেমিকা পূজার সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়ার মধ্য দিয়ে নতুন ইনিংস শুরু হচ্ছে জাতীয় দলের ক্রিকেটার সৌম্য সরকারের। শুরু হচ্ছে নতুন পথচালা। তবে এসবের পেছনেও একটা গল্প আছে। সে গল্প এক প্রেমের গল্প।

কীভাবে পূজার সঙ্গে সৌম্যর প্রথম দেখা হয়েছিল; প্রেম প্রস্তাব, এরপর একে একে আরও ঘটনা। সামাজিকে যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে এসব নিয়ে দুইজনের বক্তব্য পাওয়া গেছে।

সৌম্যর অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে পোস্ট করা ওই ভিডিওতে হাস্যোজ্বল সৌম্য আর পূজা বসে কথা বলেছেন। শুরুতে সৌম্যর দেওয়া প্রস্তাব নিয়ে কথা বলেন পূজা। পূজা বলেন, 'আমার বোনের সংবর্ধনার দিন সকাল বেলা সে আমাকে প্রস্তাব দেয়। ভোরবেলা একদম, ৪টা ১৪–তে।’ এসময় পাশে বসে সৌম্য হাসিমুখে বলেন, ‘ষোলো (৪টা ১৬)।’


সময় নিয়ে ভুল ধরিয়ে দেওয়ার মুহূর্তে বিস্মিত চোখে পূজা সৌম্যর দিকে তাকিয়ে বলেন, ‘তুমি তাহলে মনে রেখেছ!’ এরপর তিনি বললেন, ‘আমি আসলে তোমাকে পরীক্ষা করছিলাম।’

এরপর সৌম্যর খেলা, খেলার বাইরের জীবন আরও কিছু বিষয় নিয়ে কথা বলেন পূজা। কথা বলেন সৌম্যও। ফেসবুকে পোস্ট করা ওই ভিডিওর নিচে এই জুটিকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন ভক্ত ও ফলোয়ারা। 

খেলা নিয়ে নিজের খুব বেশি ধারণা না থাকার কথা জানান পূজা। তিনি বলেন, খেলা সম্পর্কে খুবই অল্প ধারণা ছিল। ও যখন মাঠ থেকে ভালো কিছু অর্জন করে আসতো। তখন কথা হতো। 'এরপর দেখা হলো। তারপর সে উপহার দিল। চিঠি লেখার ব্যাপারটাও তখন থেকেই শুরু'- বলতে থাকেন পূজা।


এ সময় ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে একটি গান ভেসে আসে- 'একটা ছেলে একটা ছেলে মনের আঙিনাতে ধীর পায়েতে এক্কা দোক্কা খেলে বন পাহাড়ি ঝর্না খুঁজে বৃষ্টি জলে একলা ভিজে সেই ছেলেটা আমায় ছুঁয়ে ফেলে।'

সৌম্যকে নিয়ে পূজা বলেন, এমনিতে সে মিষ্টি ছেলে। আমাদের ঝগড়া বেশিক্ষণ টেকে না। ঝগড়া হয়, ঠিক হয়ে যায়। পাশে বসা সৌম্য এসময় বলেন, সে যখনই আসে আশা করে আমি তাকে বলব, খুব সুন্দর লাগছে। অনেক ভালো লাগছে। আমি বলি না তাকে এবং সে এ জিনিসটা নিয়ে সারাক্ষণ আমার সঙ্গে কথা বলতেই থাকে।

'সামনাসামনি দেখায় সৌম্য আলাদা মানুষ। সে হ্যান্ডসাম এবং লম্বা। সে লম্বা, এটা আমার কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ'- এভাবেই হাসতে হাসতে বলে চলেন পূজা।