প্রোটিয়া পেসার নকওয়েনি করোনা আক্রান্ত

প্রকাশ: ০৭ মে ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

ছবি: গেটি

ছবি: গেটি

গত বছরের জুনে শরীরে গুইলাইন বেরির (জিবি) উপসর্গ ধরা পড়ে।  চার সপ্তাহ কোমায় ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার সোলো নকওয়েনি। নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে ছিলেন আরও পাঁচ মাস।  এরপর ধীরে ধীরে স্বাভাবিক জীবনের পথে ফিরতেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এই পেসার।

২৬ বছর বয়সী নকওয়েনি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ থেকে প্রতিভার স্বাক্ষর রাখতে শুরু করেন। কিন্তু গত বছর তার শরীরে জিবি উপসর্গ ধরা পড়ে। তার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ভেঙে পড়তে শুরু করে। শরীরের ওজন মারাত্মকভাবে কমতে থাকে।  দেখা দেয় আরও নানাবিধ সমস্যা।

সে সময় তিনি স্কটল্যান্ড সফরে ছিলেন। তার চিকিৎসার জন্য দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা অর্থ অনুদান দেয়। এছাড়া আরও একটা ফান্ড থেকে তিনি প্রায় ৭৫ হাজার ব্রিটিশ পাউন্ড অনুদান হিসেব পান। ওই রোগ থেকে সুস্থতার পথে আসতেই তার শরীরে টিবি রোগের লক্ষণ দেখা দেয়। তা থেকেও সুস্থ হয়ে উঠছিলেন তিনি। কিন্তু বুধবার তার দেহে ধরা পড়েছে করোনাা। 

সোলো নকওয়েনি তাই আক্ষেপের সঙ্গে টুইট করেছেন, 'সব কিছুতে বারবার আমিই কেন আক্রান্ত হচ্ছি। গত বছর জিবিএস ধরা পড়ল। ওই রোগের সঙ্গে লড়াই করলাম ১০ মাস। সেরে ওঠার মাঝ পর্যায়ে ছিলাম আমি। এরপর আক্রান্ত হলাম টিবি রোগে। আমার লিভার, আমার কিডনি ঠিক মতো কাজ করা বন্ধ করে দিলো। আজ (বুধবার) আমার দেহে ধরা পড়ল করোনা।'

নকওয়েনির এজেন্ট নিশ্চিত করেছেন, তিনি এখন বাসায় বিশ্রামে আছেন। প্রোটিয়া এই পেসার ৩৬টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলে ৬০ উইকেট পেয়েছেন। তিনি ক্যারিয়ারে দক্ষিণ আফ্রিকা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে আটটি ম্যাচ খেলেছেন। তার মধ্যে তিনটি ২০১২ সালে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে।