সাকিবকে নিয়ে শ্রীলঙ্কা সফরের ভাবনা

প্রকাশ: ০৬ আগস্ট ২০২০     আপডেট: ০৬ আগস্ট ২০২০       প্রিন্ট সংস্করণ

ক্রীড়া প্রতিবেদক

ছবি: ফাইল

ছবি: ফাইল

বাংলাদেশ দলের শ্রীলঙ্কা সফর একপ্রকার চূড়ান্ত। শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের (এসএলসি) পক্ষ থেকে এখন শুধু সূচি ঘোষণা করা বাকি। তিন টেস্টের সিরিজ খেলতে অক্টোবরের মাঝামাঝি কলম্বো যেতে পারেন মুমিনুলরা। সফরের সম্ভাব্য তারিখ ঠিক করা হয়েছে ১৪ অক্টোবর। কোয়ারেন্টাইন ও প্রস্তুতি শেষ করে খেলা শুরু করতে লেগে যাবে নভেম্বর। সাকিব আল হাসানকে পাওয়ার জন্যই পিছিয়ে সফরের সময় নির্ধারণ করার চেষ্টা। ২৮ অক্টোবর এক বছরের নিষেধাজ্ঞা শেষ করবেন বাঁহাতি এ অলরাউন্ডার। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) নিজামউদ্দিন চৌধুরী জানান, খেলার মতো ফিট থাকলে লঙ্কা সফর দিয়ে ক্রিকেটে ফেরার সুযোগ আছে সাকিবের।

আইপিএলের একটি ও জাতীয় দলের দুটি ম্যাচের আগে জুয়াড়ির কাছ থেকে হোয়াটসঅ্যাপে ফোন পাওয়ার ঘটনা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) অ্যান্টিকরাপশন ইউনিটকে (আকু) না জানানোর মতো অবহেলা করে নিষিদ্ধ হন সাকিব। এক বছর স্থগিত রেখে গত বছর ২৯ অক্টোবর দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয় তাকে। নিষেধাজ্ঞার শেষ দিন পর্যন্ত বিসিবির কোনো সুযোগ-সুবিধা নিতে পারবেন না তিনি। এই সময়ে বোর্ডের অবকাঠামো ব্যবহার করে অনুশীলনও করতে পারবেন না এই বাঁহাতি।

তাই প্র্যাকটিসের জন্য প্রাথমিকভাবে ইংল্যান্ডকে বেছে নিতে পারেন সাবেক বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। পরিবার নিয়ে আমেরিকার উসকনসিনে বসবাসরত সাকিবের এ মাসে প্র্যাকটিস শুরু করার কথা। আগস্টে মাঠে নামলে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ পূর্ণ করে শ্রীলঙ্কা সফর দিয়ে ক্রিকেটে ফেরা কঠিন হবে না তার জন্য। বিষয়টি মাথায় রেখেই সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে না করে অক্টোবরের মাঝামাঝি টাইগারদের শ্রীলঙ্কা পাঠাতে চায় বিসিবি।

ছবি: সমকাল

সফর চূড়ান্ত হওয়া নিয়ে বিসিবি সিইওর কাছে জানাতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, 'শ্রীলঙ্কা সফর মোটামুটি নিশ্চিত হয়ে গেছে। সবকিছু ঠিক থাকলে অক্টোবরে যেতে পারে দল।' বিসিবি ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খানও অক্টোবরের দ্বিতীয় সপ্তাহের কথাই জানান। যদিও সফরের অগ্রগতি সম্পর্কে ক্রিকেটার ও জাতীয় দল নির্বাচকদের আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়নি। তবে খেলোয়াড়দের মানসিকভাবে প্রস্তুতি নিতে বলেছেন জাতীয় দলের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।

আগের আলোচনায় ছিল তিন টেস্টের সঙ্গে তিন ম্যাচ টি২০ সিরিজও খেলবে দুই দল। সে কারণে সেপ্টেম্বরের শেষ দিকে বাংলাদেশ দলকে সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছিল এসএলসি। বিসিবির পরিকল্পনা ভিন্ন হওয়ায় টি২০ সিরিজের আলোচনা এগোচ্ছে না। সিইও বলেন, 'টেস্টের বাইরে অন্য সংস্করণের খেলা আগের আলোচনায় ছিল। টি২০ নিয়ে এখন আর কথা হচ্ছে না।' টাইগারদের এই সফর সমন্বয় করে এইচপি দলেরও যাওয়ার কথা শ্রীলঙ্কায়। মুমিনুলদের সঙ্গে ডাম্বুলায় প্র্যাকটিস ম্যাচ খেলবে তারা।

কভিড পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকায় এরই মধ্যে একবার ক্যাম্প হয়ে গেছে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারদের। ২৮ অক্টোবর থেকে টি২০ ক্রিকেট লিগও আয়োজনের প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছে দেশটি। সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি শেষ হবে টুর্নামেন্ট। বাংলাদেশ দলগত প্রস্তুতি শুরু না করলেও একক অনুশীলন করছেন ক্রিকেটারদের অনেকে। ঈদের আগে পাঁচটি ভেন্যুতে একক অনুশীলন করেছেন ১২ জন ক্রিকেটার। মুশফিকরা ৯ দিন ফিটনেসের পাশাপাশি ব্যাটিং অনুশীলন করেছেন মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে। গতকালই প্রথম মাঠে নামেন মাহমুদুল্লাহ। ৮ আগস্ট থেকে জাতীয় দলের প্রায় সব ক্রিকেটারকে দেখা যাবে মাঠে। এর এক সপ্তাহ পর শুরু হতে পারে ছোট ছোট দলের প্রশিক্ষণ।