দীর্ঘদিন ক্রিকেটের বাইরে বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। মুশফিকুর রহিম-মাহমুদুল্লাহরা বেশ কিছুদিন হলো মাঠের অনুশীলন শুরু করেছেন। কিন্তু বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক তামিম ইকবাল রোববার থেকে শুরু করেছেন মাঠে আসা। সোমবার জানালেন, ব্যাটিং দেখে বিস্মিত নিজেই। ভেবেছিলেন ব্যাটিংয়ে মরচে ধরেছে। কিন্তু ইনডোর অনুশীলনে দেখলেন ঠিকই আছে।

তামিম ইকবাল পেটের পীড়ায় ভুগছিলেন। সেজন্য ইংল্যান্ড গিয়ে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে এসেছেন। সেখান পরীক্ষা করিয়ে তামিম জেনেছেন, তার কোন সমস্যা নেই। অনুশীলনে ফিরতেই তাই বাধা ছিল না তার। শ্রীলংকা সফরকে লক্ষ্য ধরে দেশসেরা ওপেনার তাই ব্যাট-প্যাড নিয়ে নেমে পড়েছেন মাঠে। ঘরের ফিটনেস অনুশীলন ছেড়ে শুরু করেছেন মাঠের অনুশীলন।

সোমবার সংবাদ মাধ্যমকে তামিম দীর্ঘ পাঁচ মাস পরে তার মাঠে ফেরার অনুভূতি জানিয়ে বলেছেন, ‘অনেকদিন পরে অনুশীলন শুরু করলাম, প্রায় চার-পাঁচ মাস পর। ব্যাটিংয়ের ক্ষেত্রে যতটা জড়তা থাকবে মনে করেছিলাম, ততটা খারাপ অবস্থা আসলে না। ব্যাটিংটা মোটামুটি ঠিকই আছে। ফিটনেসের দিক থেকেও ঠিকই আছি।’

তামিমরা বাসায় ফিটনেস নিয়ে কাজ করেছেন। ট্রেডমিলে দৌড়েছেন। তবে রোদের মধ্যে দৌড়ানো, ফিটনেস নিয়ে কাজ করাটা কঠিন। বাঁ-হাতি এই ওপেনার তাই মনে করেন, আরও সপ্তাহ খানেক তার লাগবে মানিয়ে নেওয়ার জন্য, ‘যেভাবে নিয়ম মেনে সবকিছু করছি আমরা কাছে খুবই পজেটিভ মনে হয়েছে। আশা করছি এভাবে এগোতে থাকবো। আমরা এখন সবাই জানি, আমাদের খেলা কবে শুরু হবে। সেভাবেই সবাই প্রস্তুতি নিচ্ছেন।’

করোনাকালে ঘরবন্দি সময় কেটেছে ক্রিকেটারদের। পরিবারকে সময় দিয়েছেন তারা। ইচ্ছে করলেও যেতে পারেননি কোথাও। সময়টা ক্রিকেটারদের জন্য তাই কঠিন ছিল। তবে যেটা তারা পছন্দ করেন সেই খেলায় ফিরেছেন আবার। সেজন্য খুশি তামিম। তার মতে, ওই চার মাস মোটেও সহজ ছিল না। এখন সেখান থেকে বেরিয়ে এসে শ্রীলংকা সফরের জন্য মানসিক প্রস্তুতি নিতে হবে বলে জানান তিনি।