অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া নাম লেখিয়েছেন ভারতের আই লিগের ক্লাব কলকাতা মোহামেডানে। দলের সেরা তারকার অভাবটা অন্তত প্রথম ম্যাচে বুঝতে দেননি সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের ফুটবলাররা। ফেডারেশন কাপ ফুটবলে উড়ন্ত সূচনা পেয়েছে ক্লাবটি। গতকাল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব ৩-০ গোলে হারিয়েছে উত্তর বারিধারা ক্লাবকে। আর এই ম্যাচে স্কোরশিটে নাম উঠেছে দেশি ফুটবলার মোহাম্মদ ফয়সাল আহমেদ ফাহিমের। সাইফের বাকি দুই গোলের একটি করেছেন নাইজেরিয়ান কেনেথ এনগোকে। অন্য গোলটি ছিল আত্মঘাতী।

দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মাত্র একদিন আগে প্রস্তুতিতে নামা ব্রাদার্স ইউনিয়নকে ০-২ গোলে হারিয়েছে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ। বুধবার দুটি ম্যাচে গোল হয়েছে পাঁচটি। তার মধ্যে দুটি গোলই এসেছে দুই দেশি ফুটবলারের পা থেকে। বারিধারার বিপক্ষে সাইফের ফয়সাল এবং ব্রাদার্সের বিপক্ষে আরামবাগের মুরাদ হোসেন চৌধুরী গোল করেন।

বেলজিয়াম কোচ পল পুটের অধীনে প্রতিযোগিতামূলক প্রথম ম্যাচের প্রথমার্ধে সেরা ছন্দে ছিল না সাইফ। তবে বিরতির পর ঠিকই নিজেদের সেরাটা মেলে ধরেন ফয়সালরা। অবশ্য প্রথম গোলটি সাইফকে উপহার দেয় উত্তর বারিধারা। ম্যাচের ৪৯ মিনিটে সিরাজউদ্দিনের ক্রসে বল বিপদমুক্ত করতে যাওয়া মিসরের ডিফেন্ডার আব্দুর রহিমের পায়ে লেগে বল চলে যায় জালে। ৬৩ মিনিটে আগুয়ান গোলরক্ষককে পরাস্ত করে ব্যবধান দিগুণ করেন কেনেথ। আর ছয় মিনিট পর সাইফের হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন ফয়সাল।

আরামবাগের বিপক্ষে ব্রাদার্স যে লড়তে পারবে না, তা অনুমেয়ই ছিল। কারণ, গোপীবাগের ক্লাবটি যে অভিভাবকশূন্য। একদিন আগে কোচবিহীন প্রস্তুতি শুরু করেন ফুটবলাররা। ম্যাচে তার প্রভাবটাও পড়েছে। যদিও প্রথম গোল পেতে আরামবাগকে অপেক্ষা করতে হয়েছে ৪৪ মিনিট পর্যন্ত। মাঝমাঠ থেকে সতীর্থের লং বল ধরে ঠান্ডা মাথায় গোল করেন নাইজেরিয়ান চিজোবা ক্রিস্টোফার। খেলার শেষ মিনিটে ব্যবধান দিগুণ করেন মুরাদ হোসেন চৌধুরী।