ঢাকা বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

সেমির স্বপ্ন দেখছে নেদারল্যান্ডসও

সেমির স্বপ্ন দেখছে নেদারল্যান্ডসও

দক্ষিণ আফ্রিকাকে বিধ্বস্ত করার ম্যাচে ডাচদের উল্লাস - আইসিসি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশ: ১৮ অক্টোবর ২০২৩ | ১৮:১৪ | আপডেট: ১৯ অক্টোবর ২০২৩ | ০১:৩৬

আকাশে উড়তে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকাকে যারা মাটিতে নামিয়ে আনতে পারে, তারা যদি বলে, ‘আমরা এই টুর্নামেন্টে অনেক প্রত্যাশা নিয়ে এসেছি। আমরা সেমিফাইনাল খেলার সুযোগ তৈরি করতে চাই এবং আমরা যদি সেই লক্ষ্য পূরণ করতে চাই, তাহলে অবশ্যই অনেক দলকে হারাতে হবে। দক্ষিণ আফ্রিকা এই আসরের ফেভারিট।

অন্তত এই বিশ্বকাপে তারা যেভাবে শুরু করেছে, সেটা ধরলে তাদের হারানোটা আমাদের জন্য অনেক বড় কিছু।’  ডাচ অধিনায়ক স্কট এডওয়ার্ডসের কথার মধ্যে যে আত্মবিশ্বাসের চূড়ান্ত রূপ প্রকাশ পেয়েছিল। এখনও শ্রীলঙ্কা ছাড়া সব দলই অন্তত একটি করে জয় পেয়েছে। নেদারল্যান্ডসের হাতেও রয়েছে আরও ছয়টি ম্যাচ। অঙ্ক কষে তারাও সেমির স্বপ্ন দেখতেই পারে।

এমনিতে বিশ্বকাপ ইতিহাসে নেদার‍ল্যান্ডস অপরিচিত নাম নয়। ১৯৯৬, ২০০৩, ২০০৮, ২০১১ আসরের পর এবার তারা ফের বিশ্বকাপে এসেছে। আগের সব আসরে ২০ ম্যাচের মধ্যে মাত্র দুটি জয় ছিল তাদের। সেখানে এবার প্রথম তিন ম্যাচেই দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে দিয়েছে ডাচরা। এই প্রাপ্তি অবশ্যই গর্বিত করে এডওয়ার্ডসকে। ভারতে পা রাখার পর এক সাক্ষাৎকারে ডাচ অধিনায়ক বলেছিলেন, ‘আমরা এখানে মজা করতে আসিনি। পর্যটক হয়েও আসিনি। আমরা এখানে বিশ্বকাপ খেলতে এসেছি। বাকি ৯ দলের মতো আমাদের হয়তো সব সময় এমন মঞ্চে খেলার সুযোগ হয় না। তাই এবার যখন সেই সুযোগ এসেছে, তখন কিছু একটা করে দেখাতে চাই আমরা।’ দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৮২ রানে ৫ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর নেমেছিলেন অধিনায়ক। এর পর মারউইন আর আরিয়ানের সঙ্গে দুটি কার্যকরী জুটি বাঁধেন এডওয়ার্ডস। ৬৯ বলে ৭৮ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। 

গত বছর টি২০ বিশ্বকাপেও দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়েছিল নেদারল্যান্ডস। তা ছাড়া ডাচ দলের তিন ক্রিকেটার অতীতে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে বয়সভিত্তিক দলেও খেলেছেন। তাই প্রোটিয়ারদের শক্তি ও দুর্বলতা সম্পর্কে অন্য অনেকের চেয়ে ভালো ধারণা ছিল। এ কথা অবশ্য অস্বীকার করেননি এডওয়ার্ডস। ‘এটা ঠিক, আমাদের দলের অনেকে দক্ষিণ আফ্রিকা হয়ে কিছু ম্যাচ খেলেছেন। তাদের সম্পর্কে ধারণাও আছে বেশ। এদিন আমাদের সবকিছুই কাজ করেছিল।’

আরও পড়ুন

×