ঢাকা সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪

মুখরক্ষার ম্যাচে বাংলাদেশের সামনে আজ নেদারল্যান্ডস

মুখরক্ষার ম্যাচে বাংলাদেশের সামনে আজ নেদারল্যান্ডস

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়রা- ফাইল ছবি

কলকাতা থেকে, সেকান্দার আলী

প্রকাশ: ২৮ অক্টোবর ২০২৩ | ০০:০০ | আপডেট: ২৮ অক্টোবর ২০২৩ | ০৫:৩৫

ধর্মশালা, পুনের পর বাংলাদেশকে দিয়ে কলকাতার বিশ্বকাপ শুরু আজ। ধর্মশালার উদ্বোধনটা ছিল আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয় দিয়ে। সে ম্যাচে দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলেছিলেন সাকিব আল হাসানরা। পরের গল্প ছন্নছাড়া ক্রিকেটের। বিশ্ব ক্রিকেটের চার বড় দল– ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে বড় পরাজয়। বেশি দুশ্চিন্তা বাড়িয়েছে ম্যাচগুলোতে সেভাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে না পারা। যদিও মুম্বাইয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ১৪৯ রানের হারের ম্যাচে মাহমুদউল্লাহর সেঞ্চুরিকে অনেকে প্রাপ্তি যোগ বলছেন। কিন্তু বাস্তবতা হলো দল হেরে গেলে ব্যক্তিগত সেঞ্চুরি মূল্যহীন। পুরো বিশ্বকাপ যাতে মূল্যহীন হয়ে না পড়ে সাকিবদের সে চেষ্টা করতে হবে কলকাতা থেকে। এই ভেন্যুতে নেদারল্যান্ডস ও পাকিস্তানের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ দুটি ম্যাচ খেলবেন তারা। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে আজ জয় পেলে টুর্নামেন্টে পুনর্জাগরণের সূত্রপাত হতে পারে। দেশের মানুষ তাই অধীর আগ্রহ নিয়ে তাকিয়ে থাকবে কলকাতার এ ম্যাচের দিকে।

বাংলাদেশ দল মুম্বাই থেকে কলকাতা এসেছে তিন দিন আগে। কন্ডিশনে মানিয়ে নিতে যথেষ্ট অনুশীলনও করেছে। এই দু’দিনে ইডেনের উইকেট কিছুটা হলেও পড়ে ফেলার কথা খেলোয়াড়দের। যদিও সাকিবের কাছে ইডেন গার্ডেন্স বাড়ির উঠানের মতো। আইপিএলে তো কম ম্যাচ খেলেননি কলকাতা নাইট রাইডার্সের হোম ভেন্যুতে। এ কারণেই হয়তো এখানে অনুশীলনের প্রয়োজন হয় না সাকিবের। যদিও গত তিন দিনে দলের সবার চেয়ে বেশি অনুশীলন করা ক্রিকেটার তিনি। দেশে ফিরে ছোট বেলার গুরু নাজমুল আবেদীন ফাহিমের সঙ্গে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে টানা দুটি ব্যাটিং সেশন করেছেন। বিশ্বকাপ মঞ্চ থেকে দেশে ফেরা নিয়ে বিতর্কের মুখে পড়লেও সাকিব তাঁর উদ্দেশ্যে সফল। এবার মাঠে ফল পাওয়ার পালা। আজ হয়তো সেরাটা উজাড় করে খেলবেনও তিনি।

বিশ্বকাপের গত দুই ম্যাচে সেরা একাদশ নিয়ে খেলতে পারেনি বাংলাদেশ। পুনেতে ভারতের বিপক্ষে সাকিব আল হাসান ও তাসকিন আহমেদ খেলতে পারেননি চোটের কারণে। সাকিব দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ফিরলেও তাসকিন বিশ্রামে ছিলেন। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে আজ একাদশে ফিরতে পারেন তিনি। গতকাল ম্যাচ-পূর্ব সংবাদ সম্মেলনেও এসেছিলেন টাইগার এ ফাস্ট বোলার। বোঝাই যাচ্ছে, তাসকিন ফিরছেন এ ম্যাচে। সে ক্ষেত্রে একটি পরিবর্তন অবধারিত।

হাসান মাহমুদের জায়গায় খেলতে পারেন তিনি। ডানহাতির পরিবর্তে ডানহাতি। দল সূত্রে জানা গেছে, একাদশে আরও একটি পরিবর্তনের কথা ভাবা হচ্ছে– বাঁহাতি স্পিনার নাসুম আহমেদকে বিশ্রাম দিয়ে খেলানো হতে পারে ব্যাটার তাওহিদ হৃদয়কে। উদ্দেশ্য ব্যাটিং লাইনআপ আরেকটু বড় করা। যদিও হৃদয় বিশ্বকাপে এখনও ভালো করতে পারেননি। তবে একাদশ পরিবর্তনের বিষয়টি চূড়ান্ত করা হবে সকালে উইকেট দেখে। কারণ ইডেনে খেলা হবে নতুন উইকেটে। সে ক্ষেত্রে স্পিন না পেস বোলিং বিভাগকে গুরুত্ব দেবেন, সেটা টিম ম্যানেজমেন্ট ভালো জানে। প্রতিপক্ষ আর কন্ডিশন মাথায় রেখে স্পিন বোলারও বেশি খেলাতে পারে। প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে এ নিয়ে গতকাল ইডেনে সাকিবের সঙ্গে লম্বা সময় আলোচনা করেছেন।

কলকাতায় বাংলাদেশ দলের অতীত রেকর্ড খুব একটা ভালো না। ২০১৬ সালে নিউজিল্যান্ড ও পাকিস্তানের বিপক্ষে টি২০ ম্যাচ খেলে বাজেভাবে হেরেছে। ২০১৯ সালের গোলাপি টেস্টে স্বাগতিক ভারতের বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতাই করতে পারেনি। তবে ইডেনে ৫০ ওভারের গেম খেলার কোনো অভিজ্ঞতা নেই সাকিবদের। মিনহাজুল আবেদীন নান্নুরা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১৯৯০ সালের এশিয়া কাপের একটি ম্যাচ খেলেছিলন। ৩৩ বছরের পুরোনো সে অভিজ্ঞতা কোনো কাজে লাগবে না বর্তমান সময়ে। তাসকিন আহমেদদের খেলতে হবে অলআউট ক্রিকেট। কারণ এই নেদারল্যান্ডস ভয়ংকর। দক্ষিণ আফ্রিকার ‘বি’ টিম বলা হচ্ছে তাদের। তারা শেষ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৩০৯ রানে হারলেও ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন অধিনায়ক স্কট এডওয়ার্ডস। তাই সাকিবদের জিততে হলে প্রতিপক্ষকে কোমর সোজা করে দাঁড়ানোর সুযোগ দেওয়া যাবে না। এককথায় শুরুতে উড়িয়ে দিতে হবে নেদারল্যান্ডসকে।

আরও পড়ুন

×