বাংলাদেশে করোনার টিকা আসার সঙ্গে সঙ্গেই তা কিনবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সরকারি পক্রিয়ার মাধ্যমে পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করবে না। বিসিবিরি সূত্র এমনটাই জানিয়েছে।

চলতি মাসের শেষ দিকে ভারতীয় প্রতিষ্ঠান সিরামের থেকে করোনাভাইরাসের টিকা আনবে বেসরকারি ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো। তাদের থেকে কিনবে সরকার। টিকা বণ্টনের পরিকল্পনায় জানানো হয়েছে, টিকা হাতে পাওয়ার পর সরকারের মাধ্যমে বিনামূল্যে দ্বিতীয় থেকে তৃতীয় মাসের দিকে জাতীয় ক্রীড়া ফেডারেশন ও প্রতিষ্ঠান টিকা পাবে।

তবে জাতীয় পর্যায়ের অ্যাথলেটসদের প্রাধান্য দেওয়া হবে। দেশে টিকা আসার পরে সরকারের মাধ্যমে তা পেতে তাই সময় লাগবে বিসিবির। কিন্তু ক্রিকেট বোর্ড এতো দেরি করতে চায় না। কারণ জানুয়ারিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ শুরু হওয়া বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের এই ব্যস্ততা থাকবে বছর জুড়ে।

বিসিবি তাই সরাসরি বেক্সিমকোর থেকে করোনার টিকা কিনবে। বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন আবার বেক্সিমকোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক। সরাসরি টিকা সরবরাহকারী এই প্রতিষ্ঠানের থেকে তা সংগ্রহ করতে তাই বিসিবির অসুবিধা হবে না।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরী এ বিষয়ে বলেছেন, 'আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, করোনার টিকা আসার পরে বিক্রি শুরু হতেই দেরি না করে কিনে ফেলবো। শুধু জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের জন্য নয়। বরং এই খেলার সঙ্গে অনেক মানুষ সম্পৃক্ত। যারা সরকারের থেকে বিনামূল্যে টিকা পাবে না। বোর্ডের পক্ষ থেকে তাই তাদের টিকা দেওয়া হবে।'

ক্রীড়া বিষয়ক সংবাদ মাধ্যম ক্রিকবাজ জানিয়েছে, জাতীয় পর্যায়ের অ্যাথলেটসরা সরকারের থেকে দ্রুত টিকা পাবে। কিন্তু করোনাকালীন চাপা সূচির মধ্যে খেলা চালিয়ে যেতে হলে বিসিবির ম্যাচ রেফারি, আম্পায়ার, মাঠকর্মী, স্কোরারসহ আরও যারা সম্পৃক্ত তাদেরও টিকা দরকার। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট চালু করতে তাদের কথা ভাবতে হবে। বোর্ড তাই নিজ উদ্যোগে তাদের টিকা সরবরাহের কাজটা করতে চায়।