নিষেধাজ্ঞা থেকে ফিরেই সিরিজ সেরা ক্রিকেটার হলেন সাকিব আল হাসান। প্রথম ম্যাচে বল হাতে এবং পরের দুই ম্যাচে ব্যাটে-বলে নিজের জাত চিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। ফেরার আগে সাকিব বরাবরই বলেছেন, ফর্মে ফিরতে কিছুটা সময় লাগবে। সেই হিসেবে প্রত্যাশাকে ছাড়িয়ে গেছেন বাঁ-হাতি এই অলরাউন্ডার।

তবে ফেরার এই অনেক প্রাপ্তির সিরিজে শেষ ম্যাচে ইনজুরির শঙ্কা নিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। বল করার সময় পড়েন গ্রোন ইনজুরিতে। সামনে উইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ। সর্বোচ্চ ফিট সাকিবকে পাবে তো বাংলাদেশ?

উত্তরটা সিরিজ সেরার পুরস্কার নেওয়ার সময় বলতে পারলেন না ওয়ানডে ৪৮তম ফিফটি পাওয়া সাকিব। তিনি বলেন, 'আগামীকাল কেমন অনুভব করি সেটাই আগে দেখতে হবে। এই মুহূর্তে গ্রোনের ব্যথাটা ঠিকঠাক আছে মনে হচ্ছে না। বিষয়টি বোঝার জন্য ২৪ ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হবে।'

ফেরার এই ম্যাচে দুর্দান্ত পত্যাবর্তন দেখানো সাকিব কৃতিত্ব দিয়েছেন সতীর্থ এবং কোচিং স্টাফকে। তারা এগিয়ে না আসলে এভাবে ফেরা সম্ভব হতো না বলে জানান তিনি, 'কোচিং স্টাফ এবং সতীর্থদের অনেকটা কৃতিত্ব দিতে হবে। তাদের সমর্থন খুব কাজে দিয়েছে। বিশেষত প্রথম ম্যাচটায়। আমি বরাবরই জানতাম, আমার ফিরতে কটা ম্যাচ লাগবে। তবে প্রথম ম্যাচই আমাকে আত্মবিশ্বাস দিয়েছে। আমাদের এই দলে এখন অনেক প্রতিদ্বন্দ্বীতা। এটা খেলার জন্য খুবই ভালো।'