চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় পৌঁছেই আকরাম খান ছুটে গেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের বাসায়। জাতীয় দল নির্বাচক প্যানেলের দুই সদস্য মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ও হাবিবুল বাশারেরও ডাক পড়েছিল বৈঠকে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে জেতা ম্যাচ হেরে যাওয়ায় সোমবার সন্ধ্যার এ জরুরি বৈঠক। জাতীয় দলের সাবেক এই ত্রয়ীর কাছে হারের ব্যাখ্যা চেয়েছিলেন বোর্ড সভাপতি। তবে যারা সবচেয়ে ভালো ব্যাখ্যা দিতে পারতেন সেই ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফের কেউ ছিলেন না সেখানে। জুমে ভার্চুয়াল সভা করার সুযোগ থাকলেও ডাকা হয়নি। তবে সিরিজ শেষ হলে টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হবে বলে জানান বিসিবির একজন কর্মকর্তা। বিশেষ করে সুযোগ থাকার পরও টেস্টের আগে নিজেদের মধ্যে চার দিনের ম্যাচ না খেলার ব্যাখ্যা চাওয়া হবে কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর কাছে।

উইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের জন্য ১০ জানুয়ারি থেকে অনুশীলন শুরু করেন তামিম ইকবালরা। ১৪ ও ১৬ জানুয়ারি বিকেএসপিতে নিজেরা ভাগ হয়ে ৫০ ওভারের দুটি প্রস্তুতি ম্যাচও খেলেন তারা। একদিনের ক্রিকেট সিরিজ জয়ের বুঁদ হয়ে থাকা টাইগার কোচিং স্টাফ ভুলেই গিয়েছিলেন, টেস্টের প্রস্তুতি নেওয়া হয়নি এক বছর। সেখানে এক দিনে তাইজুলকে বল করতে হয়েছে ৪৫ ওভার। নাঈম হাসান মোটেও ছন্দে ছিলেন না। এর পরও কেন নিজেদের মধ্যে লাল বলের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে রাজি হননি প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। সিরিজ শুরুর আগের প্রস্তুতি ম্যাচ বাতিল হওয়ার কারণ আকরাম খানের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেছিলেন, 'কোচ চায় না ম্যাচ খেলতে।' জাতীয় দলের দুই নির্বাচকও একই কথা জানান। উইন্ডিজকে ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করার পর হাওয়ায় উড়ছিলেন ডমিঙ্গো। অতি আত্মতুষ্টিতে ছিলেন টাইগারদের কোচ।

বাংলাদেশ দলের প্রস্তুতিতে ছিদ্র ছিল অনেক। মুমিনুলদের প্রস্তুতির জন্য হোটেলে তোলা হয়েছে ২০ জানুয়ারি। লাল বলের প্রস্তুতি শুরু হয়েছে দেরিতে। সেখানে ওয়ানডে সিরিজের খেলা থাকায় টেস্ট স্কোয়াডের দিকে মনোযোগ ছিল না কোচিং স্টাফের। সাদমান ছাড়া একাদশের কেউই ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে হওয়া তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচে খেলেননি। সেখানে সফরকারী দলে ছিল উল্টো চিত্র। চার দিনের আইসোলেশন করে ১৪ জানুয়ারি থেকে টানা অনুশীলন করেছেন ক্রেইগ ব্রাথওয়েটরা। বিকেএসপিতে ৫০ ওভারের প্রস্তুতি ম্যাচও খেলেছে নিজেদের মধ্যে। ঢাকার পর ২৪ জানুয়ারি থেকে চট্টগ্রামে টানা প্রস্তুতি নিয়েছে তারা। বিসিবি একাদশের বিপক্ষে এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে বুঝে নিয়েছে স্বাগতিকদের শক্তির জায়গা। সেখানে ডমিঙ্গো চোখে রোদচশমা লাগিয়ে আয়েশ করেছেন। ঘরের মাঠে ক্যারিবীয়দের কাছে এমন হারে কী জবাব আছে ডমিঙ্গোর কাছে!