জয়ের সুখ স্মৃতি থাকা ক্রাইস্টচার্চে ঘুরে দাঁড়ানোর আশা নিয়ে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ব্যাটিং শুরু করেন তামিম ইকবাল-লিটন দাস। কিন্তু শুরুতেই হতাশ করে ফিরে যান লিটন। তিনে নেমে সৌম্য সরকারকে ধুঁকতে দেখা গেছে। অধিনায়ক তামিমকে তাই সতর্ক ইনিংস খেলতে হয়েছে। তবে প্রয়োজন বুঝে দারুণ ব্যাটিং করেছেন মোহাম্মদ মিঠুন। তার ব্যাটে করে ৬ উইকেট হারিয়ে ২৭১ রান তুলেছে বাংলাদেশ।

মঙ্গলবার হেগলি ওভালে ইনিংস শুরু করে লিটন দাস ফিরে যান ডাক মেরে। এরপর তামিম-সৌম্য গড়েন ৮১ রানের জুটি। তবে দু’জনে খেলে ফেলেন ১১০ বল। ওই জুটির মধ্যে সৌম্যর ব্যাট থেকে আসে ৪৬ বলে তিন চার ও এক ছক্কায় ৩২ রানের ইনিংস।

এরপর দলের দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান তামিম ও মুশফিক জুটি গড়ে যোগ করেন ৪৮ রান। জুটিটা আরও বড় হওয়ার আগে তামিম ফিরে যান ব্যক্তিগত ৭৮ রানের ইনিংস খেলে। তার ইনিংসটি ছিল ১০৮ বলে ১১ চারে সাজানো। ধীরে ফিফটি করা তামিম হাত খুলে খেলতে শুরু করতেই অবশ্য হতাশার রান আউটে কাটা পড়েন।

মুশফিকের ব্যাট থেকে ঠিক বড় ইনিংস আসেনি। তিনি খেলেন ৫৯ বলে ৩৪ রানের ইনিংস। অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যানও যখন ডট দেওয়া বলগুলো পুষিয়ে দেবেন তখনই আউট হয়ে ফেরেন। তবে মোহাম্মদ মিঠুন ৫৭ বলে দুই ছক্কা ও ছয়টি চারের মারে ৭৩ রানের হার না মানা দারুণ এক ইনিংস খেলেন। বোলারদের এনে দেন লড়াই করার পুঁজি।

কিউইদের হয়ে দ্বিতীয় এই ওয়ানডে ম্যাচে স্পিনার মিশেল সাটনার নেন ১০ ওভারে ৫১ রান খরচায় ২ উইকেট। এছাড়া ট্রেন্ট বোল্ট, ম্যাট হেনরি ও কাইল জেমিনসন একটি করে উইকেট নেন। জেমিনসন ১০ ওভারে খরচা করেন মাত্র ৩৬ রান।