শেষ ওভারে পাকিস্তানের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ৩ রান। কিন্তু এই ম্যাচও হারতে বসেছিলেন বাবর-রিজোয়ানরা। শেষ পর্যন্ত শেষ বলে জয় নিশ্চিত করেন ফাহিম আশরাফ। ৩ উইকেটের রোমাঞ্চকর এই জয় দিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর শুরু করল পাকিস্তান।

শেষ দিকে নাটকীয়তা তৈরি হওয়া এই ম্যাচ পুরোপুরি পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রণে ছিল। ২৭৩ রান তাড়া করতে নেমে অধিনায়ক বাবর আজম ও ইমাম-উল হক দ্বিতীয় উইকেটে ১৭৭ রান যোগ করে সহজ জয়ের কাছাকাছি পৌঁছে দিয়েছিলেন দলকে। তবে প্রোটিয়া পেসার এনরিখ নরখিয়া সেঞ্চুরিয়ান বাবরসহ চার ওভারে ৪ উইকেট তুলে নিয়ে স্বাগতিদের দারুণভাবে ম্যাচে ফিরিয়ে এনেছিলেন। তবে ষষ্ঠ উইকেটে রিজোয়ান ও সাদাব ৫৩ রানের জুটি গড়ে আবারও ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে নিয়ে এসেছিলেন। কিন্তু শেষ দিকে এ দুই ব্যাটসম্যান ক্যাচ দিয়ে বসলে বিপদে পড়ে গিয়েছিল পাকিস্তান। এর মধ্যে শেষ ওভারের প্রথম বলে সাদাব ক্যাচ দিলে পরাজয়ের শঙ্কা ঘিরে ধরেছিল তাদের। শেষ পর্যন্ত ফাহিম উদ্ধার করেন তাদের।

দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংস আবর্তিত হয়েছে ডুসেনকে কেন্দ্র করে। তার প্রথম ওয়ানডে সেঞ্চুরিতে লড়াই করার মতো পুঁজি পেয়েছিল স্বাগতিকরা। হাফ সেঞ্চুরি করে তাকে যোগ্য সঙ্গ দিয়েছিলেন ডেভিড মিলার। যদিও শেষ পর্যন্ত ডুসেনের সেঞ্চুরি ব্যর্থ হয়ে যায়।

মন্তব্য করুন