বিতর্ক আর নেইমার যেন নিত্যসঙ্গী। ব্রাজিলিয়ান এই স্ট্রাইকার চোট কাটিয়ে পিএসজির প্রথম একাদশে ফিরেই লালকার্ড দেখেছেন। এরপর টানেলে প্রতিপক্ষ এক খেলোয়াড়ের সঙ্গে বচসায় জড়ান তিনি। এমনকি মারতেও উদ্যত হয়েছিলেন। 

কর্মকর্তাদের বাধার কারণে মারামারিতে জড়াতে পারেননি তিনি। আর লিলের বিপক্ষে এই ম্যাচে ১-০ তে হেরেছে নেইমারের দল। শেষ মুহূর্তে লালকার্ড দেখে মেজাজ বিগড়ে গিয়েছিল নেইমারের। তার সঙ্গে রেফারি লালকার্ড দেখান লিলের ডিফেন্ডার থিয়াগো জালোকেও। ড্রেসিংরুমে যাওয়ার পথে দু'জনে ঝগড়া করতে করতে টানেলে প্রবেশ করেন। এর একপর্যায়ে জালোর কথায় উত্তেজিত হয়ে ওঠেন নেইমার। তাকে মারার জন্য তেড়ে যান তিনি। জালোও ছাড়ার পাত্র নন, তিনিও ছুটে আসেন। তখন আটকাতে আসা এক কর্মকর্তাকে ধাক্কা মারেন নেইমার। এরপর দৌড়ে জালোর দিকে যাওয়ার চেষ্টা করেন তিনি। সেই সময় ধাক্কাধাক্কিতে টানেলের মধ্যে পড়ে যান এক কর্মকর্তা। তিনি পড়ে গেলেও নেইমার ও জালোকে মুখোমুখি হতে দেননি। তাই মারামারি হয়নি দুই ফুটবলারের মধ্যে।

২০২০ সালের পর থেকে তিনবার লালকার্ড দেখলেন নেইমার, ফরাসি লিগে যা সর্বোচ্চ।


মন্তব্য করুন