জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের সমন্বয়ে গড়া বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের কাছে পাত্তাই পাচ্ছে না দক্ষিণ আফ্রিকা ইমার্জিং দল। মঙ্গলবার দ্বিতীয় ওয়ানডেতে নিগার সুলতানা জ্যোতির অপরাজিত সেঞ্চুরিতে ৭ উইকেটে জিতেছে স্বাগতিকরা। ২৭ বল হাতে রেখে ৩ উইকেট খুইয়ে প্রোটিয়াদের ১৯৬ রান টপকে যায় বাংলাদেশ। এ জয়ে পাঁচ ওয়ানডের সিরিজে ২-০-তে এগিয়ে গেছে স্বাগতিকরা।

সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশকে অনায়াস জয় এনে দেওয়ার মূল কারিগর অধিনায়ক নিগার সুলতানা। ১৯৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে তৃতীয় ওভারেই উইকেট হারিয়ে বসেছিল বাংলাদেশ। এর পরই উইকেটে যান নিগার। ১৩৫ বলে ১১টি চারে ১০১ রানে অপরাজিত থেকে জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন তিনি। তাকে যোগ্য সহায়তা দিয়েছেন রোমানা খাতুন। চতুর্থ উইকেটে নিগার ও রোমানা অবিচ্ছিন্নভাবে ১১৫ রান যোগ করেন। বাংলাদেশ নারী দলের ওয়ানডে অধিনায়ক রুমানা অপরাজিত ছিলেন ৪৫ রানে। প্রোটিয়াদের দুইশর নিচে আটকে রাখায় মূল ভূমিকা রাখেন স্বাগতিকদের দুই স্পিনার নাহিদা আক্তার ও রিতু মনি। দু'জনই ৩টি করে উইকেট তুলে নেন। জাতীয় দলের টি২০ অধিনায়ক সালমা খাতুনও দারুণ বোলিং করেছেন। মাত্র ১টি উইকেট নিলেও তার দশ ওভারে মাত্র ২৩ রান ব্যয় করেন তিনি। আর তার নেওয়া একমাত্র উইকেটটি বেশ মূল্যবানও। প্রোটিয়াদের সর্বোচ্চ ৮০ রান করা আন্দ্রেই স্টেইনকে বোল্ড করেন তিনি।

তবে প্রথম দুই ম্যাচে স্বাগতিকদের একাদশ দেখে একটি প্রশ্নও উঠেছে। ইমার্জিং দলের একাদশে ওয়ানডে অধিনায়ক রোমানা আহমেদ, টি২০ অধিনায়ক সালমা খাতুন, তারকা পেসার জাহানারাসহ জাতীয় দলের ১০ জন কেন? এমনিতে ইমার্জিং দলের হয়ে অনূর্ধ্ব-২৩-এর বেশি বয়সী তিনজন ক্রিকেটার নামানোর একটি নিয়ম আছে। কিন্তু বাংলাদেশ ইমার্জিং দল সব নিয়ম ভেঙে ফেলেছে। তবে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের নির্বাচক মঞ্জুরুল ইসলাম জানিয়েছেন, আগামী জুন-জুলাই মাসে শ্রীলঙ্কায় মেয়েদের বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব হবে। করোনার কারণে লম্বা সময় ধরে খেলার মধ্যে নেই নারী ক্রিকেট দল। আর বিশ্বকাপ বাছাইয়ের আগে কোনো জাতীয় দলের কোনো ম্যাচও আয়োজন করা সম্ভব নয়। তাই প্রস্তুতির জন্য জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের খেলানো হচ্ছে।