লিসবনের স্মৃতি এখনও বেশ তরতাজা নেইমার-এমবাপ্পেদের মনে। গত বছর ২৩ আগস্টের ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে হারের পর ফ্যাল ফ্যাল চোখে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ট্রফির দিকে নেইমারের তাকিয়া থাকাটা এখনও অনেককে পোড়ায়। সাত মাসের মাথায়ই সেই হারের প্রতিশোধ নেওয়ার মোক্ষম সুযোগ পেয়ে গেছে ফরাসি জায়ান্টরা। সেই প্রতিশোধের নেশায় আজ অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনায় কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে শিরোপাধারী বায়ার্নের মুখোমুখি হচ্ছে পিএসজি। আজ শেষ আটের অন্য লড়াইয়ে পোর্তোর মুখোমুখি হচ্ছে চেলসি।

প্রতিশোধের মিশনে নামার আগেই একটি স্বস্তির খবর পেয়েছে পিএসজি। হাঁটুর চোটের কারণে আজ খেলতে পারছেন না বায়ার্নের গোলমেশিন রবার্ট লেভানডস্কি। নেইমারের চোট থেকে ওঠাও প্যারিসের দলটির জন্য ভালো খবর। যদিও গত শনিবার ফ্রেঞ্চ লিগে ছন্দে ছিলেন না নেইমার, লালকার্ড দেখে টানেলে ধাক্কাধাক্কিতেও জড়িয়ে ছিলেন ব্রাজিলিয়ান এই তারকা। অবশ্য তার থাকা না থাকা পিএসজির জন্য বড় কিছু নয় বলেই ইদানীং প্রতীয়মান হচ্ছে। এই যেমন গত রাউন্ডে তাকে ছাড়াই বার্সাকে ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত করেছিল পিএসজি। ওই ম্যাচে মাঝমাঠে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন মার্কো ভেরাত্তি। করোনা পজিটিভ হওয়ায় বায়ার্নের বিপক্ষে নামতে পারছেন না ইতালিয়ান এই মিডফিল্ডার। তাকে না পাওয়ায় বরং বেশি ক্ষতি হতে পারে পিএসজির। করোনার কারণে ইতালিয়ান ডিফেন্ডার ফ্লোরেঞ্জিও ছিটকে গেছেন। এই প্রতিশোধ মিশনে পিএসজির সবচেয়ে বড় চিন্তা হলো সাম্প্রতিক ফর্ম। টমাস টুখেলকে সরিয়ে মাউরোসিও পচেত্তিনোকে কোচের দায়িত্ব দেওয়ার পর থেকেই যেন পেছন দিকে হাঁটছে ফরাসি জায়ান্টরা। টুখেলের আমলে প্রায় সব ঘরোয়া ট্রফি গেছে পিএসজির শোকেসে। সে সঙ্গে গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালেও উঠেছিল তারা। কিন্তু পচেত্তিনো দায়িত্ব নেওয়ার পর লীগের শীর্ষস্থান থেকে ছিটকে গেছে তারা। গত ছয় ম্যাচে তিনটি হেরেছে তারা। তাই গতবছর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল হারের চেয়েও বেশি চাপে আছে পিএসজি।

বায়ার্নের সাম্প্রতিক সাফল্যের রূপকার হলেন লেভানডস্কি। গত মৌসুমে বায়ার্নের ছয় শিরোপা জয়ে পোলিশ এই স্ট্রাইকারের অবদানই বেশি। এজন্য মেসি-রোনালদোর বৃত্ত ভেঙে ফিফা বর্ষসেরাও হয়েছেন তিনি। চলতি মৌসুমেও চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ও বুন্দেসলিগায় বায়ার্নের করা ১০৩ গোলের মধ্যে ৪৬টিতে অবদান রয়েছে লেভানডস্কির। তবে লেভানডস্কিকে ছাড়াই গত শনিবার বুন্দেসলিগায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা লাইপজিগকে হারিয়েছে বায়ার্ন। ওই হারের পর লাইপজিগের কোচ নাগলেশমান বলেন, 'অবশ্যই লেভানডস্কির উপস্থিতি প্রতিপক্ষের জন্য ভীতিকর। কিন্তু তাকে ছাড়াও বায়ার্ন দুর্দান্ত একটি দল। তার জায়গায় খেলার জন্য তাদের কয়েকজন দারুণ ফুটবলার রয়েছে।' আজ লেভার পজিশনে খেলতে পারেন এরিক ম্যাক্সিম চৌপু-মোটিং। এ মৌসুমে পিএসজি থেকেই বায়ার্নে এসেছেন এই ক্যামেরুনিয়ান।

মন্তব্য করুন