বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের রাতেই দুঃসংবাদটি পেলেন নেইমার। অবশ্য সংবাদটা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ সংক্রান্ত নয়। লিলের বিপক্ষে লালকার্ড পাওয়া এবং টানেলে মারমুখী আচরণের জন্য লিগ ওয়ানে দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ হয়েছেন পিএসজির এই ব্রাজিলিয়ান তারকা। 

গত বুধবার ফ্রেঞ্চ লিগ (এলএফপি) কর্তৃপক্ষ জানায় এ সিদ্ধান্ত। ফলে আগামী শনিবার স্ট্রাসবার্গ ও ১৮ এপ্রিল সেন্ট এতিয়েনের বিপক্ষে তাকে পাবে না পিএসজি। জালোকে এক ম্যাচ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এলএফপির বিবৃতিতে বলা হয়, 'গত ৭ এপ্রিল শৃঙ্খলা কমিটির বৈঠকে নেইমারকে তিন ম্যাচ নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত হয়, এর মধ্যে এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়েছে।' 

গত শনিবার লিলের বিপক্ষে বদলি হিসেবে নেমেছিলেন নেইমার। ম্যাচের শেষদিকে প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডার থিয়াগো জালো বারবার ফাউল করছিলেন তাকে। আগেই এক হলুদকার্ড পাওয়া নেইমার মাথা ঠান্ডা রাখতে পারেননি। রাগে জালোকে ধাক্কা দিয়ে বসলে রেফারি দ্বিতীয় হলুদকার্ড দেখান ব্রাজিলিয়ান এই তারকাকে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মাঠে উত্তেজনা ছড়ায়। পরে জালোকেও লালকার্ড দেখান রেফারি। লালকার্ড পেয়ে ড্রেসিংরুমে ফেরার সময় টানেলে দু'জনের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয়। একপর্যায়ে নেইমার তেড়ে গিয়েছিলেন জালোর দিকে। ওই ডিফেন্ডারও ছেড়ে কথা বলেননি, তিনিও ছুটে এসেছিলেন। তবে দু'দলের কর্মকর্তারা তাদের মাঝে চলে আসায় মারামারি বাধেনি। 

গত সেপ্টেম্বরেও মার্শেইয়ের বিপক্ষে ফাউলকে কেন্দ্র করে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় লালকার্ড দেখে দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ হয়েছিলেন নেইমার।

মন্তব্য করুন