চিঠি চালাচালি হয়েছে অনেক। ভার্চুয়ালি মিটিংও হয়েছে কয়েকবার। মালদ্বীপ ঈগলসের বিপক্ষে এএফসি কাপ প্লে-অফ ম্যাচটি ঘরের মাঠে ৫ মে খেলতে এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনকে ঢাকা আবাহনীর হয়ে চিঠিও দিয়েছিল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। শুধু নিজেদের ম্যাচই নয়, বেঙ্গালুরুর ম্যাচটিও আয়োজনের পরিকল্পনা জানায় আবাহনী। কিন্তু বাফুফের চিঠির উত্তর না দিয়ে গতকাল যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে এএফসি, তা আবাহনীর জন্য হয়ে এসেছে দুঃসংবাদ। না খেলেই এএফসি ক্লাব কাপ থেকে বাদ পড়েছে ধানমন্ডি পাড়ার ক্লাবটি।

বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি এবং আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ থাকায় গতকাল এক সভায় আবাহনীর প্লে-অফ ম্যাচটি না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এশিয়ান ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। এএফসি তাদের ওয়েবসাইটে আবাহনীকে বাদ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। তাতে প্লে-অফে চলে গেছে মালদ্বীপ ক্লাব ঈগলস। ১১ মে মালেতে ভারতের ক্লাব বেঙ্গালুরু এফসির মুখোমুখি হবে ঈগলস। এই ম্যাচের বিজয়ী দল ১৪ মে থেকে শুরু হতে যাওয়া গ্রুপ 'ডি'তে খেলবে। এই গ্রুপে আছে বাংলাদেশ থেকে বসুন্ধরা কিংস।

১৪ এপ্রিল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে হওয়ার কথা ছিল আবাহনী-ঈগলস ম্যাচটি। তখন সরকার কর্তৃক লকডাউন ঘোষণায় ম্যাচটি স্থগিত হয়ে যায়। ২১ এপ্রিল নেপালে হওয়ার কথা থাকলেও লকডাউনের সময়সীমা বেড়ে যাওয়ায় সেখানেও ম্যাচটি হয়নি। তবে আবাহনী মালদ্বীপকে বলেছিল ম্যাচটি তাদের মাঠে আয়োজনের জন্য। এমনকি ভারতের ক্লাব বেঙ্গালুরুকেও এই প্রস্তাব দিয়েছিল।

মালদ্বীপ না করে দেওয়ায় শেষ পর্যন্ত ৫, ৬, ৭ মে- এই তিন তারিখের যে কোনো একটিতে ম্যাচ খেলার কথা জানিয়ে এএফসিকে চিঠি দেয় বাফুফে। অথচ ফেডারেশন বারবার বলে আসছিল মালদ্বীপ এই ম্যাচটি আয়োজন করতে আগ্রহী নয়। তাহলে ১১ তারিখে কীভাবে বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে প্লে-অফ ম্যাচটি আয়োজন করছে মালদ্বীপ? এই প্রশ্ন রাখা আবাহনীর ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রুপু এএফসির চিঠির অপেক্ষায় আছেন, 'মালদ্বীপ যদি ১১ তারিখে ম্যাচ আয়োজন করতে পারে, তাহলে আমাদেরটা কেন ৮ মে আয়োজন করতে পারবে না। আমরা এখন এএফসির চিঠির অপেক্ষায় আছি। আগে তাদের চিঠি দেখি, তারপর এ নিয়ে কথা বলব।'

মূলত এএফসি কাপের জন্য বিশেষ একটি কভিড কমিটি করা হয়েছে। সেই কমিটি বাংলাদেশের বিষয়টি পর্যালোচনা করে ঢাকা আবাহনীকে বাদ দিয়ে টুর্নামেন্ট এগিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে। এএফসি তাদের ওয়েবসাইটে লিখেছে, লকডাউন, ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার জন্য আবাহনী ম্যাচ আয়োজনের ডেডলাইন মিস করেছে। এ জন্য মালদ্বীপের ক্লাব ঈগলসকে পরবর্তী প্লে-অফ ভারতের বেঙ্গালুরুর সঙ্গে খেলার জন্য উত্তীর্ণ করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন