সংবাদ সম্মেলন বয়কট করায় গুনতে হয়েছে জরিমানা। সঙ্গে গ্র্যান্ডস্লাম কতৃপক্ষের নিষেধাজ্ঞার হুমকি। ফ্রেঞ্চ ওপেনে কোর্টের লড়াই ছাপিয়ে আলোচনায় শুধু জাপানি নারী টেনিস তারকা নাওমি ওসাকা। 

ক্লে-কোর্টে প্রথম রাউন্ডে জেতার পর মানসিক চাপ এড়াতে সংবাদ সম্মেলনে না আসায় চারটি গ্র্যান্ডস্লাম জয়ী ওসাকাকে নিয়ে টেনিস দুনিয়ায় বিতর্ক শুরু হয়। সেই বিতর্কের শেষটা নিজেই করেছেন ২৩ বছর বয়সী এ টেনিস সেনসেশন। টেনিসের গ্র্যান্ডস্লাম ফ্রেঞ্চ ওপেন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। 

সোমবার এক টুইট বার্তায় তিন বছর ধরে মানসিক অবসাদের কথাও লিখেছেন ওসাকা। আপাতত টেনিস থেকে কিছুদিন দূরে থাকতে চান তিনি। জাপানি এ টেনিস কন্যায় টুর্নামেন্ট থেকে সরে যাওয়ায় তোলপাড় চলছে টেনিস বিশ্বে। তবে সমালোচনার চেয়ে সেরেনা উইলিয়ামস, মার্টিনা নাভ্রাতিলোভার মতো খেলোয়াড়রাও সহানুভূতি জানিয়েছেন। গণমাধ্যম বয়কটের সিদ্ধান্তটি ওসাকা আগে থেকেই নিয়েছিলেন। 

প্রথম রাউন্ডে বয়কটের পর যখন বহিষ্কারের হুমকি পেয়েছিলেন, তখনেই তার মনে হয়েছে টুর্নামেন্টটা আর চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। তাকে নিয়ে সবাই যেভাবে আলোচনা করছে,সেটা থামাতেই এমন সিদ্ধান্ত ওসাকার,'এটা এমন পরিস্থিতি যা আমি কখনো কল্পনা করিনি। টুর্নামেন্ট, অন্য খেলোয়াড় এবং নিজের ভালর জন্য আমার মনে হয়েছে সরে যাওয়া উচিত। যাতে এখন সবাই প্যারিসে টেনিসের দিকে মনযোগ দিতে পারে।' রোলা গাঁরো সংবাদ সম্মেলন বয়কটের যে সিদ্ধান্তটি নিয়েছেন সেই বার্তাটা আরও ভালভাবে হতে পারত বলে মনে করেন ওসাকা,'আমি কখনোই ঝামেলায় জড়াতে চাইনি। আমি মানছি আমার সময়টা আদর্শ ছিল না এবং আমার বার্তাটা আরও পরিস্কার হতে পারত।' 

তিন বছর আগে থেকে মানসিক অবসাদে ভুগতে থাকার বিষয়টিও বিবৃতিতে তুলে ধরেছেন তিনি,'সত্যি কথা হলো,২০১৮ সালের ইউএস ওপেন (যখন সেরেনাকে হারিয়ে প্রথম গ্র্যান্ডস্লাম জিতেছিলেন) থেকেই আমি মানসিক অবসাদে ভুগছি। এরসঙ্গে লড়াই করতে সত্যিই খুব কঠিন সময় কাটাচ্ছি। প্যারিসে আমি ইতোমধ্যে মানসিক সমস্যায় ভুগছি। তাই আমার কাছে মনে হয়েছে নিজেকে দূরে রাখা এবং সংবাদ সম্মেলন বয়কট করা ভাল।'

কিছুদিন কোর্ট থেকে দূরে থাকতে চান ওসাকা,'আপাতত আমি কোর্ট থেকে কিছুদিন দূরে থাকতে চাই। তবে যখনই সময় হবে, তখন খেলোয়াড়, গনমাধ্যম এবং ভক্তদের জন্য ভালো হয় এমন পথ বের করতে কতৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করব।'

সংবাদ সম্মেলন বয়কট করায় একদিন আগেও অনেকেই ওসাকার সমালোচনা করেছেন। এখন টুর্নামেন্ট থেকে সরে দাঁড়ানোয় টেনিসের অনেক তারকাদের পাশে পাচ্ছেন জাপানি এ টেনিস কন্যা। রোলা গাঁরো থেকে ওসাকার সরে দাঁড়ানোটা দুভাগ্যজনক বলে মন্তব্য করেছেন ফ্রেঞ্চ টেনিস ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট জাইলস মরেটন,'নাওমি ওসাকার জন্য আমরা দু:খিত এবং ব্যথিত। রোলা গাঁরো থেকে তার সরে যাওয়াটা সত্যিই অপ্রত্যাশিত। তার দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি এবং আগামী বছর এই টুর্নামেন্টে তাকে দেখতে চাই।' 

প্রথম রাউন্ডে রোমানিয়ার ইরিনা কামেলিয়া-বেগুকে ৭-৬ (৮/৬), ৬-২ সেটে দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠার পর সেরেনাকে কথা বলতে হয়েছে ওসাকাকে প্রসঙ্গে। জাপানি টেনিস খেলোয়াড়ের প্রতি সহানুভূতি জানিয়ে সেরেনা বলেন,'তার অনুভূতিটা আমি বুঝি। তার জন্য আমার শুভ কামনা রইল। আমরা সবাই ভিন্ন ভিন্ন ব্যক্তিত্বের অধিকারী। সে ভালভাবেই বিষয়টি সামাল দিয়েছে।' 

সেরেনার মতো নাভ্রাতিলোভাও পুরোপুরি সমর্থন দিয়েছেন ওসাকাকে।

বিষয় : নাওমি ওসাকা নারী টেনিস তারকা জাপান

মন্তব্য করুন