বিশ্বকাপ বাছাইয়ে আগের ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষেও রক্ষণাত্মক কৌশলে খেলেছিল বাংলাদেশ। র‌্যাঙ্কিং এবং পরিসংখ্যানে এগিয়ে থাকা ভারতের সঙ্গেও যে ডিফেন্সিভ খেলবে, তা অনুমেয়ই ছিল। তাই বলে এত রক্ষণাত্মক? আফগানদের সঙ্গে পিছিয়ে পড়া বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়াতে ছিল মরিয়া। শেষ ২০ মিনিট তো আফগানিস্তানের সীমানায় একের পর এক আক্রমণ শানানো লাল-সবুজের দলটি তপু বর্মণের অসাধারণ গোলে সমতা এনেছিল। কিন্তু সোমবার ভারতের বিপক্ষে খুঁজে পাওয়া যায়নি জামাল ভূঁইয়াদের। বল দখল, পাসিং সবকিছুতেই ছিল জেমি ডের দলের ব্যর্থতা। নিজেদের রক্ষণ সামলাতে এতটাই মনযোগী ছিলেন তপু বর্মণরা, শেষ দিকে ভারতের একচেটিয়া আক্রমণে মনোযোগও হারিয়েছেন ডিফেন্ডাররা। তাই তো শেষ দিকে সুনীল ছেত্রির জোড়া গোলেই শেষ হয়ে যায় ভারতকে হারানোর আশা।

ভারতের কাছে হারের পর কোচের অতি রক্ষণাত্মক কৌশল নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। গতকাল দোহা থেকে ভিডিওবার্তায় অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়াও রক্ষণাত্মক কৌশল খেলা নিয়ে নিজের হতাশা প্রকাশ করেন, 'আমরা ভারতের সঙ্গে জিততে চেয়েছিলাম। প্রথম ১০ মিনিট ভালো ছিল। কিন্তু এরপর আমরা বেশি ডিফেন্স চিন্তা করেছিলাম। বিশেষ করে শেষ ১২ মিনিট আমরা এত নিচে চলে গিয়েছি। কেন এমনটা হয়েছে, তা নিয়ে আমরা আলোচনা করব।'

রক্ষণে মনোযোগ দিতে গিয়ে বারবার বল হারিয়েছেন মতিন মিয়া-মোহাম্মদ ইব্রাহিমরা। ম্যাচের পুরোটা সময়জুড়ে শুধু বলের পেছনে ছুটেছেন রাকিবরা। আবার নিজেদের কাছে বল এলে সতীর্থকে না দিয়ে তুলে দিয়েছেন প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়ের পায়ে। ম্যাচে দু'দলের বল পজিশনের পরিসংখ্যানও বলছে বাংলাদেশের দুরবস্থা। ভারতের বল পজিশন যেখানে ছিল ৭৪ শতাংশ, সেখানে বাংলাদেশের মাত্র ২৪ শতাংশ। ১৯ মাস আগে সল্টলেকে ১-১ গোলে ড্র করা বাংলাদেশ দু-একটি আক্রমণ করলেও দোহায় এদিন তা করতে পারেনি।

এর জন্য বল হারানো এবং মিস পাসকে সামনে এনেছেন জামাল ভূঁইয়া, 'আফগানিস্তানের সঙ্গে ভালো খেলেছিলাম। গোলের সুযোগও পেয়েছিলাম। কিন্তু ভারতের সঙ্গে বেশি সুযোগ সৃষ্টি করতে পারিনি। এটা নিয়ে আমরা বসব। কেন আমরা বল পজিশনে রাখতে পারিনি, মিস পাস বেশি হয়েছে। এটা বড় একটা ম্যাচ। এটা দক্ষিণ এশিয়ার এল ক্ল্যাসিকো। সবাই দেখতে চেয়েছিল আমাদের জয়। কিন্তু আমরা তো বল দখলে রাখতে পারিনি। এই জায়গায় আরও উন্নতি করতে হবে। আর মিস পাস বেশি করেছি। এখন এই ম্যাচ আমরা ভুলে যেতে চাই। ওমানের বিপক্ষে ভালো করাটাই আমাদের লক্ষ্য।'

১৫ জুন ওমানের বিপক্ষে বাছাইয়ের শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হবে লাল-সবুজের দলটি।