সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক গত জুন মাসে তাদের বাংলাদেশের ব্যবসা থেকে প্রায় আড়াই কোটি টাকা মূল্য সংযোজন কর (মূসক) বা ভ্যাট সংগ্রহ করে সরকারি কোষাগারে জমা দিয়েছে। 

ফেসবুকের এই ভ্যাট জমা দেওয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশে ব্যবসা করে এমন নিবন্ধিত অনাবাসী প্রতিষ্ঠানের কাছে প্রথম ভ্যাট রিটার্ন পেল জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

ফেসবুক ঢাকা দক্ষিণ ভ্যাট কমিশনারেটে নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠান। গত ১৩ জুন আয়ারল্যান্ডের ঠিকানা ব্যবহার করে অনাবাসী প্রতিষ্ঠান হিসেবে ভ্যাট নিবন্ধন নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। ফেসবুকের পক্ষে ঢাকা দক্ষিণ ভ্যাট কমিশনারেট অফিসে রিটার্ন জমা দিয়েছে প্রাইস ওয়াটার হাউস কুপারস( পিডাব্লিউসি) বাংলাদেশ। সিটিব্যাংক এনএর ঢাকার একটি শাখার মাধ্যমে ২ কোটি ৪৪ লাখ টাকা জমা দিয়েছে সংস্থাটি।

ঢাকা দক্ষিণ ভ্যাট কমিশনারেট সুত্র জানায়, ফেসবুক চলতি মাসে নিয়মিত করদাতা হিসেবে ভ্যাট রিটার্ন দিয়েছে। নিবন্ধিত করদাতাকে লেনদেনের হিসাব জানিয়ে প্রতি মাসেই ভ্যাট রিটার্ন দিতে হয়। ফেসবুক এ দেশে বিজ্ঞাপন প্রচারসহ নানা ধরনের সেবা দিয়ে থাকে। ওইসব সেবায় ১৫ শতাংশ ভ্যাট রয়েছে। এর আগেও ফেসবুক তাদের সেবার বিপরীতে ভ্যাট পরিশোধ করতো। ব্যাংকের মাধ্যমে তাদের পাওনা নেওয়ার সময় স্বয়ংক্রীয়ভাবে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ভ্যাট কেটে রাখতো। কিন্তু কোনো রিটার্ন দাখিল করতো না। ফলে বোঝা যেতো না প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশে কী কী ধরনের সেবা দিচ্ছে বা কত টাকার সেবা বিক্রি করছে। নিবন্ধন নেওয়ার কারণে এখন রিটার্ন দাখিল করছে। ফলে প্রতিষ্ঠান কত টাকার সেবা বিক্রি করেছে, সেই তথ্যসহ যাবতীয় আয়-ব্যয়ের তথ্য থাকছে ভ্যাট কর্তৃপক্ষের কাছে।

এ পর্যন্ত চারটি অনাবাসী প্রতিষ্ঠান (যাদের এ দেশে ব্যবসা থাকলেও স্থায়ী কার্যালয় নেই) ভ্যাটের নিবন্ধন নিয়েছে। ফেসবুক ছাড়া অন্য প্রতিষ্ঠানগুলো হলো গুগল, আমাজন ও মাইক্রোসফট। গত ২৩ মে গুগল ও ২৭ মে আমাজন ভ্যাট নিবন্ধন নিয়েছে। আর ১ জুলাই মাইক্রোসফট ভ্যাট নিবন্ধন নেয়। মাইক্রোসফট আগামী আগস্টে রিটার্ন দেওয়া শুরু করবে। 

ঢাকা দক্ষিণ ভ্যাট কমিশনারেট সূত্রে জানা গেছে, আমাজন ও গুগল ইতিমধ্যে ভ্যাট রিটার্ন দেওয়ার সময় বাড়ানোর আবেদন করেছে। কর্তৃপক্ষ তাদের আবেদনে সাড়া দিয়েছে। এই দুটি প্রতিষ্ঠান আগামী আগস্ট থেকে রিটার্ন দেবে বলে জানা গেছে।