টানা তিন ম্যাচ জিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ জয় করে পরের ম্যাচেই হারের স্বাদ পেল বাংলাদেশ। বাংলাদেশের দেওয়া ১০৫ রানের টার্গেটে ৬ বল অক্ষত রেখে ৭ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌছে সফরকারীরা। এতে চলতি সফরে প্রথম জয়ের মুখ দেখলো ওয়েড-মার্শরা।

শনিবার সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। কিন্তু আগে ব্যাট করে স্কোরকার্ডে ভালো সংগ্রহ করতে পারেনি টাইগাররা। ব্যাটিং ব্যর্থতায় ১০৪ রান করতে সমর্থ হয় স্বাগতিকরা।

ম্যাচ হেরে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ বলেন, উইকেটের চরিত্র বুঝতে পারেননি তারা। ১০৪ রানের সংগ্রহ ১২০ পার করতে পারলে এই ম্যাচেও জেতা সম্ভব ছিল। 

মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘এই মাঠে রান তাড়া করা সবসময়ই কঠিন। তাই আমরা আগে ব্যাট করেছি। আমরা মনে হয় উইকেট ভালো মতো বুঝতে পারিনি। এই উইকেটে ১২০ রান হলে ভালো হতো। আমরা ১০-১৫ রান কম করেছি। এর মধ্যেও বোলাররা ভালো করেছে। এই রান নিয়েও খেলাটা আমরা ১৯তম ওভারে এনেছি। তবে ব্যাটসম্যানদের আরও সতর্ক ও বুদ্ধিদীপ্ত ব্যাটিং করতে হবে।’

আজকের ম্যাচের উইকেটকে সবচেয়ে কঠিন আখ্যা দিয়ে অধিনায়ক বলেন, ‘আজকের উইকেট এই সিরিজের সবচেয়ে কঠিন উইকেট ছিল। আমরা এখান থেকে তেমন কিছু নিতে পারিনি। ব্যাটিংয়ের সময় যে সুযোগ পেয়েছি, সেটার সুবিধা নিতে পারিনি।’

বাংলাদেশ বোলিংটা ভালো করলেও এক সাকিবের ওভারেই ম্যাচ নিজেদের করে নেয় স্বাগতিকরা। সাকিবের এক ওভারে ৫ ছক্কা হাঁকান ক্রিস্টিয়ান। নিজের ক্যারিয়ারে এমন দিন কখনো দেখেননি সাকিব।

নিজের ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বাজে বোলিং ফিগারটা আজই করেছেন সাকিব। অজিদের বিপক্ষে চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে তিনি দিয়েছেন ৫০ রান।

ম্যাচ হারলেও বোলারদের নিয়ে বেশ সন্তুষ্ট ছিলেন রিয়াদ। যার প্রমাণ দিলেন তিনি বোলারদের প্রশংসার মাধ্যমে। মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘বলার অপেক্ষা রাখে না যে বোলাররা দুর্দান্ত খেলেছে এবং ১৯তম ওভার পর্যন্ত ম্যাচ নিয়ে এসেছে। আমাদের আরও সতর্ক হতে হবে।’