মালদ্বীপে নানা প্রতিবন্ধকতার মধ্যেই সাফ মিশন চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। টুর্নামেন্টের মাঝপথে বাজে এক অভিজ্ঞতার শিকার হতে হয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল দলকে। অনুশীলন শেষ করে হোটেলে ফেরার অপেক্ষায় থাকা দলকে নিতে আসেনি কোন গাড়ি। প্রায় ঘণ্টা খানেক অপেক্ষার পর বাধ্য হয়ে জামাল-তপুদের গন্ত্যব্যে ফিরতে হয়েছে পায়ে হেঁটে!

হ্যানভেরু ফুটবল গ্রাউন্ডে রোববার বিকেলে অনুশীলন ছিলো বাংলাদেশ দলের। আয়োজকদের সূচি অনুযায়ী দুই ঘন্টা অনুশীলন করার কথা বাংলাদেশের। কিন্তু দুইদিন বিশ্রামে ছিল বিধায় কোচ জামাল-তপুদের অনুশীলন করিয়েছেন বাড়তি ৩০ মিনিট। এই অজুহাতেই বাংলাদেশ দলকে হোটেলে ফেরার বাস দেয়নি আয়োজকরা। বাধ্য হয়ে পায়ে হেটে হোটেলে ফিরেছেন ইয়াসিন আরাফাতরা।

এ নিয়ে ক্ষোভ জানিয়েছেন তপু বর্মণরা। হেঁটে হোটেলে যাওয়ার সময় আক্ষেপের সুরে ডিফেন্ডার তপু বর্মণকে বলতে শোনা যায়, 'হেঁটে হেঁটে এলাম। আমাদের কোন নিরাপত্তা নেই। এটা ঠিক নয়।' 

এ বিষয়ে গণমাধ্যমে বাংলাদেশ দলের মিডিয়া ম্যানেজার হাসান মাহমুদ বলেন, আমাদের হোটেলে ফেরার বাস দেয়া হয়নি। বাধ্য হয়ে ২০ মিনিট হেটে টিম হোটেলে জেনে ফিরেছি। আমরা বারবার আয়োজকদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। তারা আমাদের জানিয়েছে আমরা নাকি বাড়তি অনুশীলন করেছি, তাই বাস চলে গেছে।' 

বিষয়টি সাউথ এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশনে (সাফ) জানানোর কথা জানিয়ে হাসান বলেন, আমরা এরই মধ্যে সাফের কাছে মৌখিক অভিযোগ করেছি। লিখিতভাবে অভিযোগের প্রস্তুতি চলছে।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে কঠোরভাবে স্বাস্থবিধি মানার কথা থাকলেও বাস্তবে বাংলাদেশের এই ভোগান্তিতে প্রশ্ন উঠেছে সাফের আয়োজকদের অব্যবস্থাপনা নিয়ে। এভাবে যদি হেটেই হোটেলে ফিরতে হয়, তাহলে কোথায় রইলো ফুটবলারদের জৈব সুরক্ষাবলয়।