আইপিএলের রাউন্ড রবীন লিগ শেষে সাকিব-মোস্তাফিজকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দলের সঙ্গে যোগ দিতে বলা হয়েছিল। রাজস্থান রয়েলস প্লে অফে উঠতে না পারায় মোস্তাফিজকে ওয়ার্ম আপ ম্যাচের আগেই পেয়েছে বাংলাদেশ দল। তবে বিসিবির অনাপত্তিপত্র (এনওসি) নিয়ে আইপিএলে এলিমিনেটরের ম্যাচ খেলেছেন সাকিব।

ওই ম্যাচে কোহলির ব্যাঙ্গালুরুকে হারিয়ে কোয়ালিফায়ার নিশ্চিত করে সাকিবের দল কলকাতা। দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে কেকেআর খেলবে দিল্লী ক্যাপিটালসের বিপক্ষে। এই ম্যাচেও বিসিবি তাকে খেলার অনাপত্তিপত্র দিয়েছে। পরিস্থিতির মুখে তাই আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ার্ম আপ সাকিবকে পাবে না বাংলাদেশ। 

আজ দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে দিল্লি ক্যাপিটালসের মুখোমুখি কলকাতা। এই ম্যাচ জিতলেই ফাইনালে উঠে যাবে মরগ্যানরা। কিন্তু কলকাতা ফাইনালে উঠলে সাকিবের কী হবে? ১৫ অক্টোবরের ফাইনালে সাকিব খেলবেন নাকি না খেলেই বাংলাদেশ দলের সঙ্গে যোগ দেবেন তিনি। এ বিষয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

দিল্লির বিপক্ষে কেকেআর জিতলে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। আগেভাগে কোন সিদ্ধান্ত নেয়ার পক্ষপাতী নন বোর্ডের সিইও নিজামুদ্দিন চৌধুরী। এমনটাই জানানো হয়েছে ক্রিকবাজের প্রতিবেদনে।

এবার আইপিএলের ফাইনালের কয়েক ঘণ্টার মধ্যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডের খেলা শুরু হবে। মূল পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জনের জন্য সেই রাউন্ডে খেলছে বাংলাদেশও। আগামী ১৭ অক্টোবর ওমানে প্রথম ম্যাচে স্কটল্যান্ডের মুখোমুখি হবেন টাইগাররা। 

সাকিব যদি আইপিএলের ফাইনালে খেলার অনুমতি পায়, তাহলে দুবাই থেকে মাসকটে যেয়ে একদিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে তাকে। তাতে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে সাকিবের খেলা অনিশ্চিত হয়ে যাবে।

সে কারণেই আইপিএলের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার শেষে সাকিবকে দলের সঙ্গে যুক্ত হতে বলতে পারে বিসিবি। ক্রিকবাজকে এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবির সিইও নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজন, 'আইপিএলের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারের পর আমরা সাকিবকে জাতীয় দলের ড্রেসিংরুমে ফিরে আসার ব্যাপারে চূড়ান্তভাবে বলব। যদি সে ফাইনাল খেলতে চায়, তাহলে সে পর্যাপ্ত বিশ্রাম পাবে কি না, এ ব্যাপারে আমাদের অনেক কিছু বিবেচনা করতে হবে এবং আমরা এটি নিয়ে কাজ করছি।'

সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে নানা দিক ভেবে দেখারও ব্যাপার আছে বলে জানালেন তিনি, ‘আসলে আমরা অনেক কিছু নিয়েই ভাবছি। সব দিক ভেবেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এক বায়ো বাবল (জৈব সুরক্ষা বলয়) থেকে বেরিয়ে আরেক বাবলে ঢুকবে, এতে কোনো সমস্যা নেই বলে ভাবতে পারেন অনেকে। মানছি, কিন্তু সাকিবকে তো এক দেশ থেকে যেতে হবে আরেক দেশে (সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ওমানে)। এ ক্ষেত্রে বাবলে ব্যাঘাত ঘটবে কি না, ভেবে দেখার বিষয় এটিও।’

কেকেআর আজ হেরে গেলে অবশ্য অত ভাবনার দরকারই পড়বে না।