রোববার রাতে ওমানে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম দিনে লজ্জার হারে মিশন শুরু হয়েছে বাংলাদেশের। আগাম ঘোষণা দিয়েই বাংলাদেশকে ৬ রানে হারিয়ে শুভ সূচনা করেছে আইসিসির সহযোগী সদস্য দেশ স্কটল্যান্ড।

প্রথম ম্যাচে আইসিসির সহযোগী স্কটোল্যান্ডের বিপক্ষে হেরে ক্ষুব্ধ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে তিনি জানান, এই পরাজয় চিন্তায়ও আসেনি। বিষয়টি এখনো মেনে নিতে পারেননি তিনি। পাপনের মতে, এই ম্যাচ থেকে দলের কোনো প্রাপ্তিই নেই। 

ওমানে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, 'এটা নিয়ে মন্তব্য করা খুব কঠিন। ভালো কিছু বলার মত কিছু নাই। হারার মধ্যেও ভালো কিছু প্রাপ্তি থাকে, কিন্তু এখানে পুরোটাই লস। 

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, 'এর আগে শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ডের কাছে প্র্যাকটিস ম্যাচ হেরেছি। যদিও হারা উচিত হয়নি, তারপরও মনে হয়েছে নিয়মিত কয়েকজন খেলোয়াড় নেই, এজন্য এমন হতেই পারে। কাল তো এই সমস্যা ছিল না। তামিম ছাড়া পুরো দলই খেলেছে। কখনও চিন্তাও করা যায়নি যে, আমরা স্কটল্যান্ডের কাছে এই ম্যাচ হারতে পারি।'

শুধু টি-টোয়েন্টি না, ক্রিকেটের সব ধরণের র‍্যাংকিংয়ে স্কটল্যান্ডের চেয়ে ঢের এগিয়ে বাংলাদেশ। শক্তিমত্তা বা অভিজ্ঞতায়ও যোজন যোজন এগিয়ে সাকিব-মুশফিকরা। তবে স্কটল্যান্ডের দাপুটে ক্রিকেটের কাছে যেভাবে হেরেছে দল, তাতে বিশ্বকাপের মূল পর্বে উঠতেই শঙ্কা জাগছে বাংলাদেশ শিবিরে।

স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হেরে পরের দুই ম্যাচটি জিততেই হবে বাংলাদেশ। তারপরেও নিশ্চিত নয় পরবর্তী পর্ব। কারণ ওমান যদি দুটি ম্যাচে জয় পায় ও স্কটল্যান্ডও সবগুলো জিতে যায়, তাহলে নেট রান রান রেটে মূল পর্বে চলে যাবে ওমান ও স্কটল্যান্ড। বাংলাদেশ বাদ পড়বে বাছাইপর্ব থেকেই।

নেট রান রেটে ইতোমধ্যেই ওই দুই দলের তুলনায় ঢের পিছিয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। ওমানের নেট রানরেট যেখানে ৩.১৩৫ সেখানে বাংলাদেশের মাইনাস (-) ০.৩। আর টাইগারদের হারানো স্কটল্যান্ডের ঠিক উল্টো +০.৩।