ওমানকে ৮ উইকেটে হারিয়ে 'বি' গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন স্কটল্যান্ড। শুরুতে ব্যাট করে ওমান সংগ্রহ করে ১২২ রান। জবাবে স্কটল্যান্ড ১৮ বল ও ৮ উইকেট হাতে রেখে জয় পেয়েছে। স্কটল্যান্ডের এই জয়ে 'বি' গ্রুপে রানার্স আপ হলো বাংলাদেশ।

বাছাইপর্বে  তিন ম্যাচের সবকটি জিতে ৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় মূলপর্বে স্কটিশরা খেলবে গ্রুপ ২-এ, যেখানে আছে ভারত, পাকিস্তান, নিউ জিল্যান্ড, আফগানিস্তান। অন্যদিকে দুই ম্যাচ জিতে  ৪ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ রানার্স-আপ হওয়া বাংলাদেশ পরের ধাপে পড়েছে গ্রুপ ১-, যেখানে তাদের সঙ্গী ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, দক্ষিণ আফ্রিকা।

আরব আমেরাত স্টেডিয়ামে  ১২৩ রানের লক্ষ্যে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে স্কটল্যান্ড তুলে ৩৩ রান। ১৯ বলে ২০ রান করে বিদায় নেন জর্জ মানসি। দ্বিতীয় উইকেটে ম্যাথু ক্রসকে নিয়ে এগোতে থাকে অধিনায়ক কাইল কোয়েটজার। ২৮ বলে ৪১ রান করে কোয়েটজার বিদায় নেন।

ক্রস ও রিচি বেরিংটনের ব্যাটে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্কটল্যান্ড। ছক্কা মেরে স্কটল্যান্ডের জয় নিশ্চিত করেন রিচি। ২১ বলে হার না মানা ৩১ রান করেন রিচি। ৩৫ বলদ ২৬ রানের ধীরগতির ইনিংস খেলেন ক্রস। স্কটল্যান্ড পায় ৮ উইকেটের জয়।

এর  আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো করতে পারেননি ওপেনাররা। রানআউট হয়ে খালি হাতেই  ওপেনার জাতিন্দর সিং।এরপর  ৩ রানে ফেরেন কেশাপ প্রজাপতি। তৃতীয় উইকেট জুটিতে ব্যাট হাতে দুর্দান্তে খেলতে থাকেন ওপেনার আকিব এবং নাদিম।  কিন্তু ৩৭ রানে ইলিয়াস এবং ২৫ রানে নাদিমের বিদায়ের পর খেই হারিয়ে ফেলে ওমান।

৩০ বল খেলে ৩৪ রান তুলেন জিসান। এছাড়া স্বন্দীপ ৫ রানে, নাসিম ২ রানে, সুরজ কুমার ৪ রানে, ফয়য়েজ ৭ রানে এবং বিলাল আউট হন ১ রানে। আর শূন্যরানে অপরাজিত থাকেন কাওয়ার আলি। স্কটল্যান্ডের পক্ষে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন জস ডেভয়। এছাড়া দুটি করে সাফওয়ান শরিফ ও মিচেল লিস্ক এবং একটি উইকেট পেয়েছেন মার্ক ওয়াট।

ওমান একাদশ

আকিব ইলিয়াস, জতিন্দর সিং, খাউয়ার আলি, জিসান মাকসুদ (অধিনায়ক), ক্যাশপ প্রজাপতি, নাসিম খুশি, মোহাম্মদ নাদিম, সুরাজ কুমার, ফয়েজ বাট, সন্দ্বীপ গৌদ, বিলাল খান।

স্কটল্যান্ড একাদশ

কাইল কোয়েতজার (অধিনায়ক), জর্জ মুনসে, ম্যাথিউ ক্রস, রিচি বেরিংটন, কলাম ম্যাকলয়েড, ম্যাথিউ লিস্ক, ক্রিস গ্রিভস, মার্ক ওয়াট, জশ ড্যাভে, সাফইয়ান শরিফ, ব্র্যাড হোয়েল।