সুপার টুয়েলভে টানা তিন ম্যাচ হেরে শেষ চারের লড়াই থেকে কার্যত ছিটকে গেছে মাহমুদউল্লাহরা। দলের এমন ভরাডুবির মধ্যেও বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের বিশ্বস্ত সদস্য সাকিব আল হাসানকে নিয়ে পাওয়া গেল বড় দুঃসংবাদ। জাতীয় দলের এক সূত্র থেকেই পাওয়া গেছে এমন খবর।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচ খেলার সময় হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পায় সাকিবের। এরপরেও চোট নিয়েই ওপেনিংয়ে নেমেছেন তিনি। ম্যাচ শেষে সাকিবকে দুইদিন বা ৪৮ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে রাখার সিদ্ধান্ত নেয় টিম ম্যানেজম্যান্ট। আজ জানা গেছে, বিশ্বকাপের বাকি দুই ম্যাচে সাকিবকে পাচ্ছে না বাংলাদেশ দল। যদিও টিম ম্যানেজম্যান্টের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসেনি।

যেহেতু বিশ্বকাপের বাকি ম্যাচগুলোতে খেলতে পারবেন না তাই পরশু টিম হোটেল ছাড়বেন সাকিব। সেখান থেকেই সরাসরি যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লাইট ধরবেন টাইগার অলরাউন্ডার। 

উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহানও পরের ম্যাচে খেলার সম্ভাবনা কম। গতকাল ফোনে তিনি জানান, দুই দিনের পরিচর্যাতেও ব্যথা কমেনি। সোহানের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হবে ১ নভেম্বর। চোটের মিছিলে নতুন কেউ যোগ দিলে শেষ ম্যাচে একাদশ নামানোই কঠিন হয়ে পড়বে ডমিঙ্গোর জন্য। কারণ বাংলাদেশ দলে বর্তমানে কোন বিকল্প খেলোয়াড় নেই। দেশ থেকে বিকল্প খেলোয়াড় উড়িয়ে আনার সময় নেই। দলের সঙ্গে বায়ো-বাবলে ঢুকতে হলে বাধ্যতামূলক ছয় দিনের আইসোলেশন করতে হবে। কড়াকড়ি এই নিয়মের কারণেই প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বিশ্বকাপের আমিরাত অংশে যোগ দেননি। 

অবশ্য বাংলাদেশ দল টুর্নামেন্টে আছেই আর মাত্র পাঁচ দিন। বিকল্প খেলোয়াড় নিয়ে টিম ম্যানেজমেন্ট হয়তো ভাবছেও না। বরং বিশ্বকাপের ভাবনা ছেড়ে দিয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে হোম সিরিজ নিয়ে চিন্তা করা লাভজনক। তাই দূরের চিন্তা না করে আপাতত ক্রিকেটারদের চাঙ্গা করার চেষ্টা চলছে।

আগামী ২ নভেম্বর আবুধাবিতে দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ৪ নভেম্বর দুবাইতে অস্ট্রেলিয়ার মোকাবেলা করবে বাংলাদেশ।