বাঁহাতের বৃদ্ধাঙ্গুলির চোটের জায়গায় কালসিটে পড়ে আছে। চাপ পড়লেই ব্যথা অনুভূত হয়। জড়তা ভাঙতে তবুও নেটে হালকা ব্যাটিং করেন তামিম ইকবাল। ব্যাটিং হাত কিছুটা খুললেও ম্যাচ খেলার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি। গতকাল পর্যালোচনা শেষে ফিজিওর রিপোর্টে তামিমকে আরও তিন সপ্তাহ পর ম্যাচ খেলার সুপারিশ করা হয়েছে। তাই পাকিস্তান সিরিজেও টি২০ খেলা হচ্ছে না ওয়ানডে অধিনায়কের।

এ বছর এখন পর্যন্ত আন্তর্জাতিক টি২০ ম্যাচ খেলেননি তামিম। নিউজিল্যান্ড সফরে ওয়ানডে খেলে টি২০ সিরিজ থেকে ছুটি নিয়েছিলেন। হাঁটুতে চোট পাওয়ায় জিম্বাবুয়ে সফরে একদিনের ক্রিকেট সিরিজে নেতৃত্ব দিলেও টেস্ট আর টি২০ খেলেননি। চোট পরিচর্যা করতে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড সিরিজে ছিলেন না। টি২০ বিশ্বকাপের দল নির্বাচন থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেন। 

যদিও বিশ্বকাপ শুরুর আগেই নেপালে এভারেস্ট প্রিমিয়ার লিগে খেলেন ভায়রাহাওয়া গ্ল্যাডিয়েটরসে। নেপালের টি২০ লিগে পাঁচটি ম্যাচ খেলেন ৩২ বছর বয়সী এ ওপেনার। শেষ ম্যাচে ব্যাটিং করার সময় হাতের আঙুলে বল লাগে। এক্স-রেতে চোট ধরা পড়ায় টুর্নামেন্ট শেষ না করেই দেশে ফেরেন ৭ অক্টোবর। এক মাসেরও বেশি সময় ধরে চোট পরিচর্যা করেও খেলার অবস্থা ফিরে পাননি। 

যদিও ধারণা করা হচ্ছে জাতীয় দলে আর টি২০ খেলবেন না তামিম। সে কারণে পরিস্থিতি অনুযায়ী নিজেকে সরিয়ে নিচ্ছেন। এই অনুমানের পক্ষেও জোরালো কোনো যুক্তি নেই। পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচ টি২০ সিরিজ না খেললেও টেস্ট দিয়ে জাতীয় দলে ফিরতে পারেন বাঁহাতি এ ওপেনার। ২৬ থেকে ৩০ নভেম্বর তামিমের শহর চট্টগ্রামে হবে প্রথম টেস্ট। দ্বিতীয় টেস্ট ৪ থেকে ৮ ডিসেম্বর মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে।