হাঁটুর চোট এখনও পুরোপুরি সারেনি। ফলে আগামী বছর উইম্বলডনে নামা অনিশ্চিত রজার ফেদেরারের। তিনি নিজেই জানিয়েছেন, যদি উইম্বলডনে নামতে পারেন, তা হলে নিজেই অবাক হবেন। সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ফেদেরার বলেন, 'সত্যিটা হল, আমি যদি উইম্বলডনে নামতে পারি তা হলে নিজেই খুব অবাক হব। কারণ হাঁটুর অস্ত্রোপচারের পরে সুস্থ হয়ে উঠতে বেশ কয়েক মাস সময় লাগে। সেই সময় দিতেই হবে।'

২০ টি  গ্র্যান্ড স্ল্যাম বিজয়ী ফেদেরার গত আগস্টে ৪০ বছরে পা রেখেছেন। বর্তমানে হাঁটুর অস্ত্রোপচারের কারণে বিশ্রামে রয়েছেন। ইনজুরির কারণে চলতি বছরে মাত্র পাঁচটি টুর্নামেন্টে অংশ নিয়েছেন।

আগামী জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে না খেলার ঘোষণা দিয়েছেন। তবে মে মাসে ফ্রেঞ্চ ওপেন ও জুনে ফেবারিট উইম্বলডনে খেলার ব্যপারে তিনি আশাবাদী। ২০২১ সালে কোর্টে ফেরার আগে ডান হাঁটুর দুটি অস্ত্রোপচারের কারণে প্রায় বছরখানেক ধরে বিশ্রামে ছিলেন ফেদেরার। এ বছর কোর্টে ফিরে মাত্র ১৩টি ম্যাচ খেলেছেন। জুলাইয়ে উইম্বলডনের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নেবার পর হাঁটুতে তৃতীয় অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে। এখন সব কাটিয়ে ২০২২ সালে প্রতিযোগিতায় ফিরতে চান। যদিও একইসাথে জানিয়েছেন আগামী চার থেকে পাঁচ মাস বেশ গুরুত্বপূর্ণ। এই সময়ের সুস্থতার উপরই সবকিছু নির্ভর করছে। 

চলতি বছর উইম্বলডনের পর ফেদেরার টোকিও অলিম্পিকে খেলতে পারেননি। সুইস এই সেনসেশন বলেছেন, 'দীর্ঘমেয়াদে সুস্থতার নিমিত্তেই আমি হাঁটুর অস্ত্রোপচার করাতে বাধ্য হই। আমার মূল লক্ষ্য হচ্ছে একজন সুস্থ মানুষ হিসেবে নিজেকে ফিরিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনা।'

ফেদেরার জানিয়েছেন, জানুয়ারিতে তিনি হালকা অনুশীলন শুরু করবেন। মার্চ-এপ্রিলে পূর্ণাঙ্গ মাত্রায় অনুশীলনে যোগ দিবেন। পেশাদার টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে শেষবারের মত নিজেকে আরো একবার প্রমাণ করতে চান সুইস তারকা।