টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ফাইনালে না উঠতে পারলেও গোটা টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত খেলেছে পাকিস্তান। এ টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম। সংযুক্ত আরব আমিরাতে ৬ ইনিংসে ৬০.৬০ গড়ে ৩০৩ রান করেছেন তিনি। 

বিশ্বকাপে চরম ব্যর্থতা ও সিনিয়র খেলোয়াড়রা না থাকলেও বাংলাদেশকে খাটো করে দেখছেন না পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম। তার মতে  নিজেদের কন্ডিশনে বাংলাদেশ শক্তিশালী দল এবং তারা সেটার প্রমাণও দিয়েছে। তাই প্রতিপক্ষকে সহজভাবে নেয়ার অবকাশ নেই। 

বিশ্বকাপের আগে দেশের মাটিতে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডকে বিধ্বস্ত করে বাংলাদেশ। টাইগারদের কাছে নাস্তানাবুদ হওয়া এই অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডই শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপের  ফাইনাল খেলে। 

বাবর আরও জানান, ঘরের মাটিতে বাংলাদেশ বিশ্বের যেকোন দলকে হারাতে পারে। তাই পাকিস্তানকে আত্মতুষ্টিতে না ভোগার আহ্বান জানান তিনি। 

বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচের আগে বাবর বলেন, 'নিজেদের কন্ডিশনে সহজ প্রতিপক্ষ নয় বাংলাদেশ। সাম্প্রতিক সময়ে নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিজেদের দক্ষতা প্রদর্শন করেছে তারা।'

প্রথম ম্যাচের আগে ১২ জনের দল ঘোষণা করেছে পাকিস্তান। দলে বিশ্বকাপে না থাকা চারজনকে রাখা হয়েছে। বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজেদের বেঞ্চের শক্তি যাচাই করে নিতে চান বাবর। তিনি বলেন, 'আমরা বেঞ্চের শক্তি পরখ করে নিতে চাই। যে কারণে চারজন খেলোয়াড়কে বদল করা হয়েছে প্রথম ম্যাচের জন্য।'

বিশ্বকাপের নক আউট পর্বে একটি খারাপ দিনের কারণে, সেমিফাইনালে হারতে হয়েছিলো পাকিস্তানকে। কিন্তু গত দুই বছরে এই ফরম্যাটে সবচেয়ে ধারাবাহিক দল পাকিস্তান। বাবর নিজেও ফর্মে আছেন এবং বিশ্বকাপেও তা অব্যাহত রেখেছেন। এই ফর্ম ধরে রাখার বিষয়ে আত্মুবিশ্বাসী বাবর বলেন, 'আমি আমার নিজের ফর্ম সম্পর্কে বেশ আত্মবিশ্বাসী এবং এখানেও আরও ভাল করার চেষ্টা করবো। তবে আমি সবসময় শিখতে প্রস্তুত এবং প্রতিটি অনুশীলন সেশনে কিছু অতিরিক্ত সময় দেয়ার চেষ্টা করি।'