প্রতারণা মামলার আসামী সুকেশ চন্দ্রশেখরের বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। আর চার্জশিটে যে তথ্য উঠে এসেছে তাতে বিপাকে পড়তে চলেছেন অভিনেত্রী জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ। ইডি জানায়, জ্যাকুলিনকে প্রায় ১০ কোটি টাকার উপহার দিয়েছেন সুকেশ, যার মধ্যে রয়েছে ৫২ লাখ টাকার একটি ঘোড়া এবং ৯ লাখ টাকার একটি পার্সিয়ান বিড়াল।

তিহার জেলে বন্দি থাকা অবস্থাতেই সুকেশ এক ব্যবসায়ীর স্ত্রীর কাছ থেকে ২০০ কোটি টাকা আদায় করেন বলেও চার্জশিটে বলা হয়েছে। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের 

জ্যাকুলিন ছাড়াও অভিনেত্রী নোরা ফতেহির নাম উল্লেখ রয়েছে চার্জশিটে। নোরাকে একটি দামি গাড়ি উপহার দেন সুকেশ। 

কিছুদিন আগেই জ্যাকুলিনের সঙ্গে সুকেশের অন্তরঙ্গ মুহূর্তের একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়, গত এপ্রিল থেকে জুনের মধ্যে ওই ছবি তোলা হয়। সে সময় অন্তর্বর্তীকালীন জামিনে মুক্ত ছিলেন সুকেশ।  

এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট সূত্রের খবর, চেন্নাইয়ে চারবার সাক্ষাৎ হয় জ্যাকুলিন ও সুকেশ চন্দ্রশেখরের। ছবিতে দেখা যায়, জ্যাকুলিনের গালে চুম্বন করছেন সুকেশ। আর সেই ছবি আয়নার প্রতিফলনে সেলফি হিসেবে তুলে রাখছেন। অভিযোগ, সুকেশের হাতে যে আইফোন ১২ রয়েছে, তা দিয়েই তিনি ইসরায়েলের সিমকার্ডের সাহায্যে প্রতারণা করেন।

বর্তামনে দিল্লির রোহিণী জেলে বন্দি রয়েছেন সুকেশ চন্দ্রশেখর। ২০০ কোটি টাকার প্রতারণার পাশাপাশি ২০টি আর্থিক প্রতারণার মামলার আসামী তিনি। এর আগে জ্যাকুলিন ফার্নান্ডেজ দাবি করেছিলেন, তিনি সুকেশ চন্দ্রশেখরকে চেনেন না।