তৃতীয় করোনা পরীক্ষায় বাংলাদেশ দলের সবাই নেগেটিভ হওয়ায় সিরিজ নিয়ে অনিশ্চয়তা কেটে গেছে আগেই। মঙ্গলবার ক্রাইস্টচার্চে প্রথম অনুশীলন করছে টাইগাররা। ১১ দিনের দুর্বিষহ রুম কোয়ারেন্টাইন কাটিয়ে ব্যাট-বল ধরতে পেরে খুশি মুমিনুলরা।

বিসিবির পাঠানো ভিডিও বার্তায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলেন, 'বাইরে বের হতে পেরে অনুভূতি অসাধারণ। ১১ দিন রুমবন্দি থাকা খুবই চ্যালেঞ্জিং ছিল ছেলেদের জন্য। ছেলেরা রৌদ্রোজ্জ্বল একটি দিনে মাঠে আসতে পেরে খুব খুশি।'

আপাতত দুদিন হালকা অনুশীলন চলবে। এরপর দল রওনা দেবে টাউরাঙ্গায়, যেখানকার মাউন্ট মঙ্গানুই স্টেডিয়ামে হবে প্রথম টেস্ট। ভিডিওবার্তায় এমনটাই জানিয়েছেন কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। তিনি বলেন, 'আপাতত হালকা ব্যাটিং-বোলিং অনুশীলন চলবে দুদিন। প্রথম টেস্টের ছয়দিন আগে আমরা টাউরাঙ্গায় যাবো, সেখানে পুরোদমে প্রস্তুতি শুরু হবে। আশাকরি সবাই পুরোদমে পরিশ্রম করবে এবং ম্যাচ খেলার মতো প্রস্তুত হয়ে যাবে।'

রৌদ্রজ্জ্বল আবহাওয়ায় প্রথম দিনের অনুশীলনে দলের মধ্যে দেখা মিলল ফুরফুরে আমেজ। তাইজুল ইসলামের পর নেটে মুশফিকুর রহিমকে বল করতে এলেন টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন। বিসিবির পাঠানো ভিডিওতে দেখা গেল সুজন বলছেন, 'নেট বোলার নেই, কি করব?'

১ জানুয়ারি মাউন্ট মাঙ্গানুইতে প্রথম টেস্টের আগে তাওরাঙ্গায় একটি অনুশীলন ম্যাচ খেলার কথা মুমিনুল হকদের। ৯ জানুয়ারি ক্রাইস্টচার্চে ফিরে দ্বিতীয় টেস্ট খেলবেন তারা।