ফেডারেশন কাপ ফুটবলের ড্র হয়ে গেলো গতকাল। সব কিছু চূড়ান্তই ছিল। ড্র ও গ্রুপিং অনুযায়ী কাল শনিবার বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস ও স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘের ম্যাচ দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরুর কথা। কিন্তু ম্যাচ শুরুর ২৪ ঘণ্টা আগে বেঁকে বসলো বসুন্ধরা। টুর্নামেন্টে না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বসুন্ধরা কিংস। শুক্রবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনকে (বাফুফে) পাঠানো এক চিঠিতে নিজেদের এই অবস্থান জানায় প্রতিযোগিতার বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

বসুন্ধরা কিংসের সভাপতি ইমরুল হাসান স্বাক্ষরিত চিঠিতে এবারের সূচির অসঙ্গতি এবং কমলাপুরের টার্ফের অবস্থা 'পেশাদার ফুটবল খেলার জন্য উপযোগী নয়' বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

সদ্য শেষ হওয়া স্বাধীনতা কাপে কমলাপুরের টার্ফের ফাদে পড়ে বসুন্ধরা কিংসের গুরুত্বপূর্ণ চার ফুটবলার ইনজুরিতে পড়ে। এর ফলে বড় বিপদে পড়ে ক্লাবটি। ইনজুরিতে পড়ার প্রবল সম্ভাবনা থাকা সত্বেও বাফুফে এই মাঠেই ফেডারেশন কাপ আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু বসুন্ধরা কিংস এই মাঠে খেলবে না বলে বাফুফেকে চিঠি দিলেও বাফুফে থেকে বিকল্প সিদ্ধান্ত আসেনি। মূলত এ কারণেই ফেডারেশন কাপে অংশ নিচ্ছে না বসুন্ধরা কিংস।

এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার ফেডারেশন কাপের ২০২১ আসরের ড্র অনুষ্ঠিত হয়। ড্রয়ে একই গ্রুপে পড়েছে বসুন্ধরা কিংস ও ১০ বারের শিরোপাজয়ী মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। তাদের সঙ্গে এবার প্রতিযোগীতা করার কথা বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লিগের সেরা হয়ে এবারই প্রথম প্রিমিয়ার লিগে উঠে আসা স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘের।

আগামীকাল ২৫ ডিসেম্বর মাঠে গড়াবে ফেডারেশন কাপের এবারের আসর। গ্রুপ পর্বের ম্যাচগুলো শেষ হবে ডিসেম্বরে। টুর্নামেন্টের চারটি কোয়ার্টার ফাইনাল হবে ১ ও ২ জানুয়ারি, দুই সেমি-ফাইনাল হবে ৫ জানুয়ারি এবং ফাইনাল মাঠে গড়াবে ৮ জানুয়ারি। প্রতিযোগীতার চ্যাম্পিয়ন দল পাবে ৫ লাখ টাকা ও রানার্স আপ দল পাবে তিন লাখ টাকা।