পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নিয়েই অনেকগুলো পদক্ষেপ নিয়ে প্রশংসিত হন রমিজ রাজা। যেখানে উল্লেখযোগ্য ছিল ঘরোয়া ক্রিকেটারদের বার্ষিক পারিশ্রমিক ।

সম্প্রতি গণমাধ্যমে রমিজ বলেন, পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটাররা বর্তমানে বার্ষিক ৫০ থেকে ৬০ লাখ রুপি আয় করে যা আগে ছিল কল্পনাতীত। তবে একটি ভিডিও বার্তায় রমিজ রাজাকে 'মিথ্যাবাদী' আখ্যা দিয়ে সালমান হিসেব কষে বুঝিয়ে দিয়েছেন, 'রমিজের দেয়া তথ্য মিথ্যা। পাকিস্তানের একজন ক্রিকেটারের কোনো বছরই ৬০ লাখ রুপি আয় সম্ভব নয়।'

সালমান আরো বলেন, 'কোনো খেলোয়াড় যদি তিন ফরম্যাটের সব ম্যাচ খেলে, তা হলে বছরে ১০টি প্রথম শ্রেণি, ১০টি ওয়ানডে ও ১০টি টেস্ট ম্যাচ। এর বাইরে টুর্নামেন্টের সেমিফাইনাল, ফাইনাল যোগ করে বছরে ৩৩-৩৪টি ম্যাচ হয়। আর তা হলে এ+ ক্যাটাগরির ক্রিকেটে ৬০ লাখ আয় করতে পারবে না। কিন্তু এ+ ক্যাটাগরির সব খেলোয়াড় কি তিন ফরম্যাট খেলতে পারে? না। আর তাদের দল সবসময় ফাইনালে ওঠে না। এক-দুজন হয়তো ফাইনাল পর্যন্ত খেলতে পারে। সেটিও ধরার মত না। তাই রমিজ রাজার এমন মন্তব্য ব্যবসায়ীদের প্রতারণাপূর্ণ কৌশল অবলম্বনের মতো।'