টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিলেন দানুশকা গুনাথিলাকা। এক বিবৃতিতে ৩০ বছর বয়সী এই শ্রীলঙ্কান ব্যাটার জানিয়েছেন, রঙ্গিন পোশাকে আরও মনোযোগ দিতে তিনি এমন সিদ্ধান্ত নেন। এর আগে আরেক লঙ্কান ভানুকা রাজাপাকসে সবধরনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সরে দাঁড়ান।

গুনাথিলাকা অবশ্য টেস্ট ক্রিকেটে নিয়মিত ছিলেন না। তার খেলা ৮ টেস্টের শেষটি তিনি ২০১৮ সালে খেলেছেন। যেখানে তিনি মোট ২৯৯ রান করেছেন। ছিল দুটি হাফসেঞ্চুরি। তবে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে বেশ উজ্জল এই বাঁহাতি। এখন পর্যন্ত ৪৪টি ওয়ানডেতে ৩৬.১৯ গড়ে ১৫২০ রান করেছেন। আর টি-টোয়েন্টিতে ৩০ ম্যাচে ১২১.৬২ স্ট্রাইক রেটে ৫৬৮ রান করেছেন।

ক্যারিয়ারজুড়েই আচরণবিধি ভাঙার দায়ে খবর হয়েছেন গুনাথিলাকা। শাস্তিও পেয়েছেন তিনবার, যার সর্বশেষটি এসেছিল গত বছরের জুলাইয়ে। ইংল্যান্ড সফরের সময় জৈব সুরক্ষাবলয় ভাঙার দায়ে কুশল মেন্ডিস ও নিরোশান ডিকভেলার সঙ্গে এক বছরের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন গুনাথিলাকা। তবে শাস্তির ছয় মাস না পেরোতেই সে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়েছে তাদের। 

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট জানিয়েছে, এ তিন ক্রিকেটারের অনুরোধেই শাস্তি মওকুফ করা হয়েছে। অবশ্য আগামী দুই বছরের জন্য থাকবে স্থগিত নিষেধাজ্ঞা। এর মাঝে আচরণবিধি ভাঙলে আবারও বাকি ছয় মাসের শাস্তি কাটাতে হবে তাঁদের।

সম্প্রতি লঙ্কান প্রিমিয়ার লিগে (এলপিএল) অংশ নেন নিষিদ্ধ তিন ক্রিকেটার। এর মাঝেই তারা বোর্ডের কাছে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার আবেদন করেন। এসএলসিও তাদের আবেদনে সাড়া দেয়। তবে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার দিনে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন দানুশকা। যদিও বাকি দুই ফরম্যাটে খেলা চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।