গেল বছর জানুয়ারিতে বিরাট কোহলি আর আনুশকা শর্মার ঘর আলো করে জন্ম হয়েছিল এক কন্যা সন্তানের। এরপর থেকেই তার কন্যা সন্তান ভামিকাকে নিয়ে জল্পনা কল্পনার কোনো শেষ ছিল না। তবে বিরুশকা তাদের প্রতিজ্ঞায় অটল ছিলেন, নির্দিষ্ট বয়সের আগ পর্যন্ত কন্যা ভামিকাকে আনবেন না ক্যামেরার সামনে।

কেপটাউনে রবিবার সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে কোহলি পেলেন ফিফটির দেখা। তখনই টিভি পর্দায় দেখা মিলে ভারতীয় ক্রিকেটার বিরাট কোহলি ও বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মার মেয়ের ছবি। স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে স্বামীর খেলা দেখছিলেন আনুশকা। তখন তার কোলেই ছিল ভামিকা। সুযোগ কোনোমতেই হাতছাড়া করেনি ক্যামেরা। মায়ের কোলে ভামিকার সেলিব্রেশন প্রকাশ্যে আসতেই হইচই শুরু হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। মূহুর্তেই ভামিকার ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। অনেকেই ভামিকার সঙ্গে বিরাট কোহলির ছোটবেলার ছবির মিল খুঁজছেন। টুইটার ট্রেন্ডিংয়ে উঠে এসেছে ভামিকা। তারকা জুটির এ সন্তানকে কেউ কেউ ছোট কোহলি, কোহলির কপি বলেও মন্তব্য করেছেন।

বিরাট কোহলির বিবৃতি

তবে কোহলি-আনুশকা জুটি জানিয়েছেন, তাদের কন্যার ছবি যে ক্যামেরায় ধারণ হয়েছে তা তারা খেয়াল করেনি। এমনটা জানলে ভামিকাকে গ্যালারিতেই নিয়ে আসতেন না।

ইন্সটাগ্রাম স্টোরিতে একটি যৌথ বিবৃতিতে আনুশকা ও কোহলি সবার প্রতি অনুরোধ করেছেন, কেউ যেন ভামিকার আর কোনো ছবি কিংবা ভিডিওচিত্র না তোলে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, 'হ্যালো বন্ধুরা! আমরা বুঝতে পারছি যে আমাদের মেয়ের ছবি গতকাল স্টেডিয়ামে ধারণ করা হয়েছে এবং তারপর তা ব্যাপকভাবে শেয়ার হয়েছে। আমরা সবাইকে জানাতে চাই যে, আমরা জানতাম না যে ক্যামেরা আমাদের ওপর তাক করা ছিল। এই ইস্যুতে আমাদের অবস্থান এবং অনুরোধ একই থাকবে। আমরা সত্যিই কৃতজ্ঞ হবো যদি ভামিকার ছবি ক্লিক বা কোথাও পাবলিশ না করা হয়। কারণটা আমরা আগেও বলেছি। ধন্যবাদ।'