চার ঘণ্টা আট মিনিট- সব মিলিয়ে ২৪৮ মিনিটের এক থ্রিলার ম্যাচের ফয়সালা হলো গতকাল মেলবোর্ন পার্কে। রড লেভার অ্যারেনায় সেই থ্রিলারে জয়ী রাফায়েল নাদাল। কানাডিয়ান ডেনিস শাপোভালভকে ৬-৩, ৬-৪, ৪-৬, ৩-৬, ৬-৩ গেমে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেন এই স্প্যানিশ তারকা। এখন ইতিহাসে নাম লেখাতে দুটি ম্যাচ জেতা চাই তার। 

গ্র্যান্ডস্ল্যামের সর্বাধিক প্রাপ্তির রেকর্ডবুকে একই ঘরে 'বিগ থ্রি' রজার ফেদেরার, রাফায়েল নাদাল ও নোভাক জকোভিচ। তিনজনই কুড়িটি করে গ্র্যান্ডস্ল্যাম জিতেছেন। সে ক্ষেত্রে চলমান অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জিতলে সবাইকে ছাড়িয়ে যাবেন রাফা। সুযোগটা এখন তার সামনে। কেননা বাকি দু'জন নেই এ আসরে।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের রাজা নোভাক জকোভিচ। মেলবোর্নে সবচেয়ে বেশি ৯ বার পুরুষ এককের শিরোপা জিতেছেন তিনি। এবার টিকা নিয়ে জটিলতায় পড়ে খেলা হয়নি। সেই দুর্গে এবার নাদাল হানা দিতে পারেন কিনা, সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা। গত বছরটা ভালো যায়নি নাদালের। চোট আর ফর্মহীনতায় একটি গ্র্যান্ডস্ল্যামও জেতা হয়নি। সর্বশেষ ২০২০ সালে ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতেছিলেন তিনি। এবার অন্তত অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ট্রফিটা হাতে নিয়ে বছর শুরু করতে চান। সেমিতে ওঠার পর তেমন হুংকারই দিয়ে রাখলেন নাদাল। 

কঠিন কন্ডিশন আর কঠিন প্রতিপক্ষের সঙ্গে নাদালকে লড়তে হয়েছে গরমের বিরুদ্ধেও। মেলবোর্নের অতিরিক্ত তাপমাত্রার সঙ্গে কোর্টে লম্বা সময় লড়াই করার ফলও অবশ্য পেয়েছেন তিনি। এখন ফাইনালে ওঠার ম্যাচে নামতে চান। ডেনিসকে হারিয়ে তেমন আভাসই দিলেন নাদাল, 'তিন ম্যাচের মধ্যে এটাই ছিল ভিন্ন। এখন সেমির জন্য প্রস্তুত আমি। যদিও কঠিন কন্ডিশন, বেশ গরম এখানে। তবু রড লেভারে খেলাটা আমার জন্য দারুণ। যেখানে আগেও সেমিফাইনাল খেলেছি। এখন আরেকটি সেমি খেলার জন্য মুখিয়ে।'

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে খুব একটা শিরোপা জেতা হয়নি নাদালের। ২০০৯ সালে রজার ফেদেরারকে হারিয়ে ট্রফি উঁচিয়ে ধরাই তার একমাত্র প্রাপ্তি। তবে এখানটায় বহুবারই তিনি অনেক কাছে গিয়ে হতাশ হয়ে ফেরেন। যার মধ্যে ২০০৮ সালে সেমি থেকে; ২০১২, ২০১৪, ২০১৭, ও ২০১৯ সালে ফাইনাল থেকে এবং সাতবার কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হয় নাদালকে। এবার অন্তত সেই তিক্ততা হজম করতে চান না তিনি। কোয়ার্টার-যুদ্ধের মতো বাকি দুটি যুদ্ধেও জিততে চান।