চার ঘণ্টা আট মিনিট- সব মিলিয়ে ২৪৮ মিনিটের এক থ্রিলার ম্যাচের ফয়সালা হলো গতকাল মেলবোর্ন পার্কে। রড লেভার অ্যারেনায় সেই থ্রিলারে জয়ী রাফায়েল নাদাল। কানাডিয়ান ডেনিস শাপোভালভকে ৬-৩, ৬-৪, ৪-৬, ৩-৬, ৬-৩ গেমে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেন এই স্প্যানিশ তারকা। এখন ইতিহাসে নাম লেখাতে দুটি ম্যাচ জেতা চাই তার।

নাদাল জিতলেও তার ওপরে ক্ষুব্ধ ডেনিস। জিতলেও স্প্যানিশ তারকা 'একশো শতাংশ' অন্যায় সুবিধা পাচ্ছেন বলে চেয়ার আম্পায়ারের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন শাপোভালভ। কানাডার এই টেনিস তারকার অভিযোগ, ম্যাচের মধ্যে সময় বেশি নিয়েছেন নাদাল। চোটের শুশ্রূষার জন্যও তিনি অতিরিক্ত সময় ব্যয় করেছেন বলে অভিযোগ শাপোভালভের। তার উপর টয়লেট ব্রেকও আম্পায়ার কেন মঞ্জুর করলেন সেই প্রশ্নও তুলেছেন। নিয়ম অনুযায়ী শটের মাঝে ২৫ সেকেন্ড এবং সেটের মধ্যে দু'মিনিটের বেশি নেওয়া যাবে না। দু'বার শাপোভালভ অভিযোগ করেন চেয়ার আম্পায়ার কার্লোস বার্নার্ডেসের কাছে। 

চেয়ার আম্পারকে এক সময় বলে ওঠেন, 'আপনারা সবাই দুর্নীতিগ্রস্ত।' শাপোভালভ পরে অবশ্য নিজের মন্তব্য নিয়ে দুঃখপ্রকাশ করেছেন, তবে নিজের অবস্থান থেকে নড়েননি। তিনি বলেন, 'নিজের জায়গায় অনড় রয়েছি। রাফা ১০০ শতাংশ অন্যায় সুবিধা পেয়েছে। আমি খেলার জন্য পুরো দেড় মিনিট ধরে তৈরি। আম্পায়ারের দিকে তাকাতে উনি বললেন রাফাকে কোড ভায়োলেশন দেবেন না, কারণ আমি খেলার জন্য তৈরি নই। এটা হাস্যকর।' 

আরো বলেছেন, 'রাফা অবিশ্বাস্য খেলোয়াড়। কিন্তু নিয়ম বলে একটা কথাও রয়েছে। এক জন খেলোয়াড়ের কাছে এটা হতাশাজনক। তখন মনে হয় কোনও খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে নয়, আম্পায়ার ও আরও অনেক কিছুর বিরুদ্ধে যেন খেলতে নেমেছি।'

শাপোভালভের অভিযোগের জবাবে নাদাল বলেছেন, 'আমার বিশ্বাস প্রতিপক্ষের মনে সব সময়ই এটা ঘোরে যে, আমাদের মতো খেলোয়াড়েরা বেশি সুবিধা পাচ্ছে। কিন্তু সেটা ঠিক নয়। কখনওই মনে হয়নি কোর্টে কোনও সুবিধা পেয়েছি। আমার বিশ্বাস, এক্ষেত্রে ও ভুল করছে।' 

বিশ্বের ১৪ নম্বর শাপোভালভের বিরুদ্ধে প্রথম দুটো সেট এবং তৃতীয় সেটের মাঝামাঝি দাপট দেখান নাদালই। কিন্তু তৃতীয় সেটে নাদালের ছন্দ নষ্ট হয় সম্ভবত পেটের সমস্যায়। এই প্রতিযোগিতায় নাদাল এক বারই খেতাব জিতেছেন। তাও ২০০৯ সালে। এমনকী শেষ ১৩টি কোয়ার্টার ফাইনালের সাতটি হেরেছেন তিনি মেলবোর্ন পার্কে। হঠাৎই এই সময় আবারও নাদালকে ম্যাচ থেকে হারিয়ে যেতে দেখা যায়। কিন্তু চতুর্থ সেটের শেষ পয়েন্ট আর পঞ্চম সেটের প্রথম সার্ভিসের মধ্যে সাত মিনিটের ব্রেক নেওয়ার পরে ফের কিছুটা চাঙ্গা হয়ে উঠতে দেখা যায় তাকে। নিজের সার্ভিস ধরে রেখে তিনি শাপোভালভের সার্ভিস ভেঙে পঞ্চম সেটে ২-০ এগিয়ে যান। এর পরে আর ম্যাচ দখল করতে সমস্যা হয়নি তার।