অবসরের সিদ্ধান্ত ঘোষণার দিন তিনেকের মধ্যেই অন্য সুর সানিয়া মির্জার গলায়। বলে দিলেন, হয়তো একটু তাড়াহুড়োই করে ফেললেন এত বড় সিদ্ধান্ত ঘোষণা নিয়ে। সানিয়া স্বীকার করেছেন, এখন বেশ আক্ষেপই হচ্ছে তার অবসরের ঘোষণা নিয়ে। আর একটু অপেক্ষা করলেই হয়তো পারতেন। এদিনই মিক্সড ডাবলস কোয়ার্টার ফাইনালে সানিয়া মির্জা ও রাজীব রামের জুটি হেরে গেছে অস্ট্রেলিয়ার প্রতিপক্ষের কাছে।

গত সপ্তাহেই সানিয়া ঘোষণা করেছিলেন, চলতি মৌসুম শেষেই তিনি তার বর্ণময় ক্যারিয়ারের ইতি টানবেন। শরীরও আর পেশাদার টেনিস খেলার ধকল নিতে পারছে না। ফলে অবসর নিয়ে সংসারেই মনোনিবেশ করতে চান ভারতীয় টেনিস সেনসেশন। সানিয়া মির্জা তার কেরিয়ারে চারটি গ্র্যান্ড স্ল্যাম খেতাব জিতেছেন। এবারও রাজীব রামকে সঙ্গী করে মিক্সড ডাবলস খেতাবের দিকে এগোচ্ছিলেন। কিন্তু তাদের চেয়ে ক্রমতালিকায় অনেক পিছিয়ে থাকা দুই অস্ট্রেলীয় জেসন কুবলার ও জেমি ফোরলিসের কাছে অবাক হারের সাক্ষী থাকতে হয়েছে সানিয়া-রামকে।

সানিয়া জানালেন অবসরের ঘোষণা দিয়ে তার আফসোস হচ্ছে এখন, 'সত্যি বলতে আমার মনে হচ্ছে, খুব দ্রুত, খুব তাড়াহুড়ো করে ঘোষণাটা দিয়ে ফেলেছি। আমার এখন আফসোসই হচ্ছে। সবাই এখন এই ব্যাপারটা নিয়েই আমার কাছে জানতে চাইছে।' 

অস্ট্রেলিয়ান ওপেন সম্প্রচারকারী চ্যানেলকে সানিয়া বলেছেন, 'আমি টেনিস খেলছি জেতার লক্ষ্য নিয়েই। যতদিন খেলব সেই লক্ষ্যে পরিবর্তন আসবে না। অবসরের পর কী হবে তা এখন আমার মাথায় নেই। আমি টেনিস উপভোগ করছি। হারি বা জিতি আমার খেলার জন্যই সকলে আমাকে মনে রাখবেন। চলতি বছর খেলার জন্য নিজে যে ১০০ শতাংশ প্রস্তুত সে দাবিও করেছেন সানিয়া। বছরের শেষের ভাবনা দূরে রেখে আপাতত প্রতিটি ম্যাচ জেতার লক্ষ্যেই তিনি কোর্টে নামবেন বলে জানিয়েছেন সানিয়া।'

তাহলে কি ২০২২ সাল শেষে অবসর নিচ্ছেন না সানিয়া? বছর শেষেও কি খেলে যাবেন ভারতের এ টেনিস কন্যা?