আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে ম্যাচটি অবিশ্বাস্যভাবে জিতে তিন ম্যাচ সিরিজে এগিয়ে আছে টাইগাররা। এবার দ্বিতীয় ম্যাচটি জিতলেই ইংল্যান্ডকে টপকে আইসিসি মেনস ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপ সুপার লিগ টেবিলের শীর্ষে উঠে আসবে বাংলাদেশ। সঙ্গে সিরিজটাও বগলদাবা করবে তামিম ইকবালের দল।

এখন পর্যন্ত ১৩ ম্যাচের ৯টিতে জয়সহ বাংলাদেশের সংগ্রহে রয়েছে ৯০ পয়েন্ট। লিগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে অবস্থান করছে টাইগাররা। অন্যদিকে, ১৫ ম্যাচে ৯৫ পয়েন্ট নিয়ে এক নম্বরে অবস্থান করছে ইংল্যান্ড। ১২ ম্যাচে ৭৯ পয়েন্ট রয়েছে ভারতের খাতায়। টিম ইন্ডিয়া রয়েছে লিগ টেবিলের তিন নম্বরে।

আয়ারল্যান্ড (১৮ ম্যাচে ৬৮) ও শ্রীলঙ্কা (১৮ ম্যাচে ৬২) রয়েছে পয়েন্ট টেবিলের যথাক্রমে চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে। আফগানিস্তানের সামনে সুযোগ ছিল এই ম্যাচ জিতে একযোগে শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ডকে টপকে চার নম্বরে উঠে আসার। তারা সিরিজের প্রথম ম্যাচ হেরে বসায় ৬ নম্বরেই থেকে যায়। আফগানদের সংগ্রহে রয়েছে আপাতত ৭ ম্যাচে ৬০ পয়েন্ট।

সিরিজ জয় বাংলাদেশকে আইসিসি র‍্যাংকিং উন্নতি করতেও সাহায্য করবে। বর্তমানে পাকিস্তানের ঠিক পেছনে সপ্তম স্থানে আছে টাইগাররা। আফগানিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ করতে পারলে টপকে যাবে পাকিস্তানকে।

শুধু সুপার লিগের জন্যই না, কাল আফগানদের হারাতে পারলে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ জয় নিশ্চিত হবে টাইগারদের। প্রথম ওয়ানডেতে ৪৫ রানেই ৬উইকেট পতনের পরও আফিফ হোসেন ও মেহেদি হাসান মিরাজের বীরত্বপূর্ণ ব্যাটিংয়ে ৪ উইকেটে জয় পায় বাংলাদেশ। অধিনায়ক তামিম ইকবালসহ সকলেই যখন জয়ের আশা ছেড়ে দিয়েছিলেন তখন আফিফ-মিরাজ জুটি সপ্তম উইকেটে রেকর্ড  অবিচ্ছিন্ন ১৭৪ রানের জুটি গড়ে দলকে লক্ষে পৌঁছে দেন। আফিফ এবং মিরাজ  দু'জনেই যথাক্রমে ৯৩ এবং ৮১ রানে অপরাজিত থাকেন। দু'জনই ওয়ানডে ক্রিকেটে নিজেদের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস খেলে বাংলাদেশকে স্মরণীয় জয় এনে দিয়েছেন।

গতকাল যেভাবে জয়ের অবস্থা থেকে ম্যাচ হেরেছে তাতে হতাশ আফগানরা। তবে সফরকারী অধিনায়ক হাশমতুল্লাহ শাহিদি প্রথম ম্যাচের স্মৃতি ভুলে যেতে চান। 'বাঁচা-মরার ম্যাচে' দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে আফগানিস্তান। 

শাহিদি বলেন, 'আমি মনে করি আমরা ৩০ রান কম করেছিলাম। কিন্তু ফজলের শুরুটা ছিল  দুর্দান্ত । তবে লড়াইয়ের জন্য তাদের কৃতিত্ব দিতেই হবে। এটি প্রথম ম্যাচ ছিল, তবে আরও দু’টি খেলা বাকি আছে এবং আমরা ঘুড়ে দাঁড়াবো।'

প্রথম খেলায় অবিশ্বাস্য জয়ের পর, দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ দলে কোন পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই। যেখানে আফগানিস্তান নিজেদের একাদশে পরিবর্তন আনতে পারে।

বাংলাদেশ দল: 

তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন, মেহেদি হাসান মিরাজ, মুস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, এবাদত হোসেন, নাসুম আহমেদ, ইয়াসির আলি চৌধুরি ও মাহমুদুল হাসান জয়।

আফগানিস্তান দল: 

হাশমত শাহিদি (অধিনায়ক), রহমত শাহ (সহ-অধিনায়ক), রহমানউল্লাহ গুরবাজ, ইব্রাহিম জাদরান, রিয়াজ হাসান, নাজিব জাদরান, শহিদ কামাল, ইকরাম আলিখিল, মোহাম্মদ নবি, গুলবাদিন নাইব, আজমত ওমরজাই, রশিদ খান, ফজল হক ফারুকি, মুজিব উর রহমান, ইয়ামিন আহমেদজাই ও ফরিদ আহমাদ মালিক।