কলকাতার ইস্টবেঙ্গল ক্লাবে বাংলাদেশের বসুন্ধরা গ্রুপের বিনিয়োগ নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলতে পারেন ভারতের ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের (বিসিসিআই) প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলী। 

এমন খবরে তোলপাড় শুরু হয়েছে কলকাতার ময়দানে। কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে সৌরভের সঙ্গে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের দুই কর্মকর্তার গোপন বৈঠকের খবর সামনে আসার পরে এমন জল্পনা আরও বেড়েছে। 

আগামী ২৪ ও ২৫ মে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে আইপিএলের প্লে অফের দুটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। তার আগে প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে হাজির হন সৌরভ। এর আগে মঙ্গলবার বোর্ডের প্রতিনিধিরাও ইডেন পরিদর্শন করেছেন। সৌরভ যে ইডেনে আসবেন তা আগে থেকেই জানতেন ইস্টবেঙ্গলের কর্তারা। ক্লাব হাউজের তিনতলায় সৌরভের সঙ্গে দেখা করেন সৌরভের বেহালার পাড়ার বাসিন্দা ও ইস্টবেঙ্গলের কর্মকর্তা সদানন্দ মুখোপাধ্যায় ও দেবব্রত সরকার। দুজনের সঙ্গে অতি ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক সৌরভের। সূত্রের খবর, তাদের কথা মন দিয়ে শুনেছেন সৌরভ।

বাংলাদেশের বসুন্ধরা গ্রুপের সঙ্গে কলকাতার ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের বিনিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়টি অনেকটা চূড়ান্ত হওয়ার পরেও ঝুলে রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদনের অপেক্ষায়। বসুন্ধরা কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবকে জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী সবুজ সংকেত পেলে তবেই তারা রাজি থাকবেন। 

ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের কর্তাদের দাবি, সৌরভের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্কের ভিত বেশ গভীরে। প্রিন্স অব ক্যালকাটার অনুরোধ হয়ত ফেরাবেন না প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাই সৌরভের হাত ধরেই বিনিয়োগ বৈতরণী পার হতে চান লাল-হলুদ কর্তারা। এদিকে, সৌরভ নিজেও ফুটবলপ্রেমী হিসেবে পরিচিত কলকাতার ময়দানে। সূত্রের খবর, সৌরভ ইস্টবেঙ্গলের দুই কর্মকর্তাকেই এদিন আশ্বস্ত করেছেন। তবে এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিকভাবে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের পক্ষ থেকে সৌরভের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।