ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে বিদেশি ক্রিকেটার সংগ্রহে বেশ কয়েক বছর ধরেই ভারতমুখী। আইপিএল চললেও এবারের লিগে বেশ কয়েকজন ভারতীয় ক্রিকেটার খেলেছেন। লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের চিরাগ জানি তাদের মধ্যে অন্যতম। অলরাউন্ড পারফরম্যান্স দিয়ে নজর কেড়েছেন সুরাষ্ট্রের ভবনগর জেলার এ ক্রিকেটার। তার বিশ্বাস, ঢাকা লিগের পারফরম্যান্স ভারতে আইপিএল ও জাতীয় দলে খেলার পথ খুলে দেবে। ঢাকা লিগ ও ভারতের ক্রিকেট নিয়ে চিরাগ জানির কথা শুনেছেন সেকান্দার আলী

সমকাল: ডিপিএলে আপনার পারফরম্যান্স কাউন্ট করবে ভারতে?

চিরাগ জানি: আশা করি শেষ ম্যাচের পর ভারতে আমার পারফরম্যান্স নিয়ে আলোচনা হবে। অলরাউন্ডার হিসেবে আমার পারফরম্যান্স মূল্যায়ন হবে। আশা করি নির্বাচকরা পারফরম্যান্স দেখবে এবং আমাকে নিয়ে ভাববে।

সমকাল: অসাধারণ পারফরম্যান্স করেছেন। অনেক রান পেয়েছেন। এই পারফরম্যান্স নিয়ে কী বলবেন?

চিরাগ জানি: রূপগঞ্জ দলের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করব, বিদেশি ক্রিকেটার হিসেবে আমাকে খেলার সুযোগ দিয়েছে। পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে আমার কাজই হলো এখানে এসে পারফর্ম করা এবং ম্যাচ জেতানো। অলরাউন্ডার হিসেবে আমার ভালো একটা মৌসুম গেল। ভালো খেললে তো সবারই ভালো লাগে।

সমকাল: ঢাকা লিগে প্রতিদ্বন্দ্বিতা কেমন থাকে?

চিরাগ জানি: ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ অনেক ভালো একটি টুর্নামেন্ট। লেভেল ভালো। বিদেশি ক্রিকেটার খেলে। বাংলাদেশের সিনিয়র ক্রিকেটাররা খুবই ভালো। তরুণরা উঠে আসছে।

সমকাল: ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ও ভারতীয় লিগের মধ্যে পার্থক্য কতটা?

চিরাগ জানি: ভারত এবং এখনকার লেভেলে পার্থক্য আছে। ভারতের ক্রিকেট অনেক কোয়ালিটি সম্পন্ন। সাদা বলের ক্রিকেটে উন্নতি হচ্ছে। বাংলাদেশ দলও ভালো খেলছে।

সমকাল: মুস্তাক আলী ট্রফি ও ডিপিএলের মধ্যে কোনটাকে এগিয়ে রাখবেন?

চিরাগ জানি: ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ৫০ ওভার টুর্নামেন্ট, সৈয়দ মুস্তাক আলী ট্রফি ২০ ওভার গেম। ভিন্ন সংস্করণের খেলা। ভারতে আইপিএল হয় এখানে বিপিএল। আইপিএলে প্রতিদ্বন্দ্বিতা বেশি। বিপিএল ভালো হলে খেলোয়াড় ভালো হবে।

সমকাল: দুই মৌসুমে খেলার অভিজ্ঞতা কেমন?

চিরাগ জানি: আমার দ্বিতীয় আসর এটি। তিন বছর আগে ব্রাদার্সে খেলেছি। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের মান বাড়ছে যেটা ভালো দিক।

সমকাল: বাংলাদেশের লিস্ট-এ ক্রিকেট তো ভারতীয় বোর্ড ফলো করে নিশ্চয়ই?

চিরাগ জানি: আশা করি এখানকার পারফরম্যান্স ভারতে কাউন্ট হবে। সেটা করলে ভারতীয় লিগে এবং আইপিএলে খেলার সুযোগ তৈরি হতে পারে। আশা করব ভারতের নির্বাচকরা আমার পারফরম্যান্স দেখবেন।

সমকাল: মাশরাফি তো আপনার উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করলেন?

চিরাগ জানি: মিরপুর এবং বিকেএসপির উইকেট খুব ভালো। ভারতেও উইকেট ভালো। ম্যাশ ভাইয়ের কাছে কৃতজ্ঞতা আমাকে সুন্দর কমেন্ট দেওয়ার জন্য। এখন থেকে ভালো স্মৃতি নিয়েই দেশে ফিরব এবং নিজের খেলায় উন্নতি করার চেষ্টা থাকবে।

সমকাল: কোনো উদীয়মান ক্রিকেটারকে ভালো লেগেছে আপনার চোখে?

চিরাগ জানি: আমাদের দলের তামিম (তানজিদ হাসান) খুব ভালো খেলোয়াড়। রান বেশি করতে পারেনি, কিন্তু ভালো খেলোয়াড়। আরও কিছু প্রতিভাবান ক্রিকেটার আছে। ২০২০ সালে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়ী ক্রিকেটাররা ভালো।

সমকাল: আপনার স্বপ্ন কী?

চিরাগ জানি: আমার স্বপ্ন হলো দেশে ফিরে ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো খেলে দলকে জেতানো। আমি আইপিএল এবং ভারত দলের জন্য অলরাউন্ডার হিসেবে অবদান রাখতে চাই।