পাকিস্তানের সরকার পরিবর্তনের প্রভাব ক্রিকেটেও পড়ে। কেননা ক্ষমতাবলে দেশটির প্রধানমন্ত্রী হয়ে থাকেন ক্রিকেট বোর্ডের চিফ প্যাট্রন। তাই ইমরান খান গদি হারানোর পর পিসিবির বর্তমান চেয়ারম্যান রমিজ রাজাকে নিয়ে শুরু হয় নানা গুঞ্জন। তার ভবিষ্যৎ ঝুলে থাকে অনিশ্চয়তার সুতোয়। তবে সেই অনিশ্চয়তা ধীরে ধীরে কাটতে শুরু করেছে। এরই মধ্যে রমিজকে রাখার পক্ষে মত দিয়েছেন সাবেক পিসিবি চেয়ারম্যান তৌকির জিয়া।

তার মতে, এ মুহূর্তে রমিজকে বদলালে নতুন একজন আসবেন সেও তার নিজস্ব ফর্মুলায় এগোতে চাইবেন তাতে ক্রিকেট এগোনোর বদলে উল্টো পিছিয়ে পড়বে। আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি আমাদের স্পোর্টস বিশেষ করে ক্রিকেট থেকে রাজনীতি পুরোপুরি মুক্ত থাকা দরকার। আমরা একজন চেয়ারম্যান পেলাম, যে কিনা ক্রিকেটার। তাকে অন্তত তিন বছর সময় দেওয়া উচিত আমাদের।'

ক্রিকেটের সঙ্গে রাজনীতির সম্পর্ক একবারেই পছন্দ নয় তৌকিরের। তার মতে, ক্রিকেটের বদলে দেশ চালানোয় মনোযোগ দেওয়া উচিত রাজনীতিবিদদের।

খেলোয়াড়ি ক্যারিয়ার শেষে ধারাভাষ্য নিয়ে ব্যস্ত থাকা রমিজ রাজাকে ক্রিকেট প্রশাসনে নিয়ে আসেন তাই সতীর্থ ইমরান খান। পাকিস্তানের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়কের একান্ত চাওয়াতেই মূলত গত সেপ্টেম্বরে দায়িত্ব নেন রমিজ। তার দায়িত্বের মেয়াদ তিন বছর। দায়িত্ব নেওয়ার পর স্বল্প সময়ে ভালো কিছু পদক্ষেপে পাকিস্তানের ক্রিকেটে নতুন প্রাণের জোয়ার এনেছেন রমিজ।