চলতি বছরেই পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ খেলার কথা ছিল শ্রীলঙ্কার। তবে আসন্ন এই সফরে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন শ্রীলঙ্কা। ফলে সিরিজ থেকে ওয়ানডে বাদ দেওয়া হয়েছে। সিরিজটি আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগের অন্তর্ভুক্ত নয়। পাকিস্তানের শ্রীলঙ্কা সফরের দিনক্ষণ এখনও চূড়ান্ত হয়নি। ওয়ানডে সিরিজটি বাদ দেওয়ায় কেবল দুটি টেস্টে মুখোমুখি হবে দক্ষিণ এশিয়ার দুই দল।

মূলত এই সময় লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ (এলপিএল) আয়োজনের পরিকল্পনা করছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। এ কারণেই পাকিস্তান সিরিজটি সংক্ষিপ্ত করেছে তারা। মূলত আর্থিক ঘাটতি পোষাতেই তারা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এই বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। পিসিবির মিডিয়া ডিরেক্টর সামি উল হাসান বলেছেন, 'শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড আর্থিক ঘাটতি পোষাতে এক সপ্তাহ আগে তাদের লিগ শুরু করতে চায়। এ কারণেই তারা ওয়ানডে সিরিজটি বাতিলের প্রস্তাব দিয়েছিল। আমরা সেটা গ্রহণ করেছি।'

ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফোকে এসএলসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অ্যাশলি ডি সিলভা বলেছেন, 'ওয়ানডে ম্যাচগুলো সুপার লিগের অংশ হিসেবে বিবেচিত হতো না। তাই আমরা সেগুলো না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।'

২০১৯ সালে শেষবার টেস্টে মুখোমুখি হয়েছিল পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা। ২০০৯ সালে লাহোরে সফরকারী লঙ্কান দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর ওই সিরিজ দিয়ে এক দশক পর টেস্ট ফিরেছিল পাকিস্তানের মাটিতে। দুই ম্যাচের সিরিজটি ১-০ ব্যবধানে জিতেছিল স্বাগতিকরা।

দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে বর্তমানে বাংলাদেশে অবস্থান করছে শ্রীলঙ্কা দল। আগামী ১৫ মে চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হবে প্রথম টেস্ট। মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট মাঠে গড়াবে আগামী ২৩ মে।