পিএসজি’র সঙ্গে আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসির চুক্তির গুঞ্জন তখন তুঙ্গে। কিন্তু সেই গুঞ্জনে জল ঢেলে বার্সেলোনায় লিও থেকে যাওয়ার বন্দোবস্ত করে ফেলেন। তখন মেসিকে পিএসজির নেইমার, লিয়ান্দ্রো পারদেস এবং ডি মারিয়া অনুরোধ করেছিলেন প্যারিসে আসতে।

জবাবে মেসি বলেছিলেন, ‘এখন আর সম্ভব নারে। কাল বার্সায় নতুন চুক্তি করছি।’ বার্সার সর্বকালের সেরা ফুটবলার খ্যাত মেসির ক্যারিয়ারে ‘ওই কাল’ আর আসেনি। চুক্তির কাছে গিয়েও সব ভেস্তে যায়। ক্লাব প্রেসিডেন্ট হুয়ান লাপোর্তা আর্থিক সংকটের কথা বলে তার সঙ্গে চুক্তি নবায়ন না করার সিদ্ধান্ত নেন।

প্রায় এক বছর আগে ঘটে যাওয়া ওই ঘটনার ব্যাখ্যা দিয়েছেন মেসির জাতীয় দলের সতীর্থ লিয়ান্দ্রো পারদেস। আর্জেন্টাইন সংবাদ মাধ্যম টিওয়াইসি স্পোর্টসকে তিনি বলেছেন, “মেসির সঙ্গে স্পেনের ইবিজা দ্বীপে আমাদের ক’জনের দেখা হলো। আমরা তাকে বললাম, ‘আমাদের এখানে (পিএসজি) চলে এসো। কিন্তু মেসি বললো, সবকিছু ঠিকঠাক করে ফেলেছি। আগামীকাল বার্সায় নতুন চুক্তি করছি।”

বার্সার মেসি। ছবি: ফাইল

পারদেস বলেন, “এরপর কী হতে যাচ্ছে আমি জানতাম না। কারণ ধরেই নিয়েছিলাম বার্সার সঙ্গে চুক্তি সই করছেন মেসি। এরপর যখন সে প্যারিসের চুক্তি করতে আসলো তখনও আমি বিশ্বাস করছিলাম না। আমি তাকে বলেছিলাম, ‘চুক্তি না করা পর্যন্ত এবং পিএসজি’র জার্সি গায়ে না চাপানো পর্যন্ত আমি তোমাকে বিশ্বাস করবো না।”

মেসিকে প্যারিসে অভ্যার্থনা জানাতে লাখো ভক্ত জড়ো হয়েছিল। বিমাবন্দর থেকে শুরু করে স্টেডিয়ামের বাইরে দর্শকের লাইন লেগে গিয়েছিল। লিও’র সমর্থনে গানে, স্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠেছিল প্যারিস। পিএসজি’র জার্সিতে প্রথম মৌসুমে সেরা ফুটবল দেখাতে না পারায় ওই মেসিকে শুনতে হয়েছে  দুয়ো। বিষয়টি এখনও বিশ্বাস করতে কষ্ট হয় পারদেসের, ‘যখন ভক্তরা তাকে ইঙ্গিত করে শিস বাজায়, আমি বিশ্বাসই করতে পারি না। অবাক লাগে, পাগলাটে মনে হয়।’