গত মার্চে এএইচএফ কাপে এই ওমানকে টাইব্রেকারে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল বাংলাদেশ। দুই মাস পর এশিয়ান গেমস হকি বাছাইয়ের ফাইনালে মুখোমুখি দু’দল। এবার মুদ্রার উল্টো পিঠ দেখতে হয়েছে ইমান গোবিনাথান কৃষ্ণমূর্তির দলকে। 

মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির সামনে পাত্তাই পায়নি লাল-সবুজের দলটি। রোববার ব্যাংককে অনুষ্ঠিত ফাইনালে ওমানের কাছে ৬-২ গোলে হেরে রানার্সআপ হয়েছে রাসেল মাহমুদ জিমি-খোরশেদুর রহমানরা। গত আসরেও এই ওমানের কাছে ২-০ গোলে হেরে রানার্সআপ হয়েছিল বাংলাদেশ।

বাছাইয়ে সেমিফাইনালে ওঠায় এশিয়ান গেমসের চূড়ান্ত পর্ব আগেই নিশ্চিত হয় বাংলাদেশের। কিন্তু প্রতিযোগিতার মূল লক্ষ্যই ছিল শিরোপা জেতা। প্রতিপক্ষ ওমান হলেও বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা ছিলেন আত্মবিশ্বাসী। তবে মাঠের লড়াইয়ে ওমানের সঙ্গে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতাই করতে পারেনি আশরাফুল-রাব্বিরা। 

প্রথম কোয়ার্টারে তিন গোল হজম করে বাংলাদেশ। ম্যাচের ৪ মিনিটে আল শাবির পেনাল্টি কর্নার গোলে এগিয়ে যায় ওমান। এরপর আল ফাহাদ ও আল সালাহর ফিল্ড গোলে ওমান লিড নেয় তিন গোলে। মূলত তখনই ব্যাকফুটে চলে যায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় কোয়ার্টারে কোনো গোল হয়নি। তৃতীয় কোয়ার্টারে আল কাশিমের ফিল্ড গোলে বাংলাদেশের ম্যাচে ফেরার আশাও শেষ হয়ে যায়। 

চতুর্থ কোয়ার্টারে আশরাফুল ইসলাম পেনাল্টি কর্নারে গোল করলে ব্যবধান কমায় বাংলাদেশ। কিন্তু ৫১ মিনিটে আল ফাজির এবং ৫৯ মিনিটে আল শিবলির গোলে ব্যবধানে গিয়ে দাঁড়ায় ৬-১-এ। খেলা শেষের বাঁশি বাজার আগ মুহূর্তে ফজলে রাব্বির গোল শুধু ব্যবধানই কমিয়েছে।

করোনার কারণে গত ৬ মে হঠাৎ স্থগিত হয়ে যায় এশিয়ান গেমস। কবে নাগাদ গেমসটি হবে, তা অনিশ্চিত। গেমস স্থগিত হলেও এশিয়ান হকি ফেডারেশন গেমসের হকি ডিসিপ্লিনের বাছাই চালিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।